চিলির বিপক্ষে ব্রাজিলের গোলরক্ষক কে?

এক ম্যাচে এদেরসন খেলেন তো, পরেরটিতে আলিসন। এখন সুযোগ পাচ্ছেন ওয়েভেরতনও। ভালো করেছেন তিন গোলরক্ষকই। তাই যে কোনো একজনকে বেছে নেওয়া একটু কঠিনই। এদেরসন জানালেন, খেলা নিয়ে স্বাস্থ্যকর একটা প্রতিযোগিতাই চলে তাদের মাঝে। কে খেলবেন এ নিয়ে কোনো রেষারেষি নেই। সবারই পরস্পরের ওপর আস্থা আছে।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 July 2021, 11:07 AM
Updated : 2 July 2021, 11:26 AM

বাংলাদেশ সময় শনিবার ভোর ছয়টায় সেমি-ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে চিলির মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। কোচ তিতে কোনো আভাস দেননি, গোলপোস্টের নিচে এই ম্যাচে দাঁড়াবেন কে।

এদেরসন ইংলিশ চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটির প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক। লিভারপুলের মূল গোলরক্ষক আলিসন। পালমেইরাসে খেলেন ওয়েভেরতন। গ্রুপ পর্বে তাদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে সুযোগ দিয়েছেন তিতে। সবাই প্রমাণও করেছেন নিজেদের সামর্থ্য। একটি জায়গার জন্য তিন জনের তীব্র লড়াইকে ইতিবাচকভাবেই নিচ্ছেন এদেরসন।

প্রথম দুই ম্যাচে গোল পোস্টের নিচে ছিলেন এদেরসন। তাকে এড়িয়ে কোনো ম্যাচেই বল যায়নি জালে। পরের ম্যাচে কলম্বিয়ার বিপক্ষে খেলেন ওয়েভেরতন। ব্রাজিল জেতে ২-১ গোলে, পরের ম্যাচে সুযোগ পান আলিসন। একুয়েডরের বিপক্ষে ম্যাচটি ড্র হয় ১-১ গোলে।

চোটে পড়ার আগ পর্যন্ত ব্রাজিলের প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক ছিলেন আলিসনই। তবে নিজের চোট আর এদেরসন ও ওয়েভেরতনের উন্নতিতে তার জায়গা এখন আর নিশ্চিত নয়। চিলি ম্যাচের আগের দিন এদেরসন জানালেন, তিন জনই খেলার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত।

“অনুশীলনে আমরা সেরাটাই দিচ্ছি। তিন জনই খেলতে চাই তবে জানি এটা কোচ ঠিক করবেন। খুব বেশি প্রত্যাশা নিয়ে বসে নেই কেউ। আমরা জানি, কোচ এখনও এটা ঠিক করেননি। যখন তিনি পরের ম্যাচের দল ঠিক করবেন তখন গোলরক্ষক বেছে নেবেন। আমরা জানি, আমাদের তিন জন মানসম্পন্ন গোলরক্ষক আছে এবং যেই সুযোগ পাবে ভালো করবে।”

“খেলি বা না খেলি প্রতিটি ম্যাচের জন্য আমি একইভাবে নিজেকে প্রস্তুত করি। ম্যাচের সম্ভাব্য সব পরিস্থিতির জন্যই আমি নিজেকে প্রস্তুত রাখি, তাই সেটা আমার মাথায় থাকে। দলের প্রস্তুতিও খুব ভালো, আমরা ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলে এসেছি। আশা করি, আমরা একটি ভালো ম্যাচ খেলব। প্রতিযোগিতায় টিকে থাকব এবং দলগত ও ব্যক্তিগতভাবে উন্নতি করব, কারণ এটা গুরুত্বপূর্ণ।”

চিলিকে গ্রুপ পর্বে গোলের জন্য ভুগতে হয়েছে। তবে তাদের মান নিয়ে কোনো সংশয় নেই এদেরসনের। ম্যানচেস্টার সিটি গোলরক্ষক জানান, পুরোটা সময় সাবধানী থাকতে হবে তাদের।

“চিলির মান সম্পর্কে আমরা জানি, নিজেদের করণীয়ও আমাদের জানা আছে। এটা সহজ ম্যাচ হবে না। মানসম্পন্ন খেলোয়াড়দের নিয়ে তারা খুব কঠিন একটি দল। এটাও জানি, আমরা ভালো মাঠও পাব না, কারণ শেষবার যখন এই মাঠে (নিল্তন সান্তোস স্টেডিয়াম) খেলেছি আমরা ভালো মাঠ পাইনি। মাঠের অবস্থা ভালো ছিল না। তবে এটা কোনো অজুহাত নয়, কারণ দুই দলের জন্যই মাঠ একই থাকবে।”

“এটা খুব কঠিন ম্যাচ হবে, যা নির্ধারিত হতে পারে ছোট ছোট ব্যাপারে। এই ম্যাচে মনোযোগ ধরে রাখাটাই হবে সবচেয়ে গুরত্বপূর্ণ।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক