নর্থ মেসিডোনিয়াকে উড়িয়ে দিল নেদারল্যান্ডস

এক দলের গ্রুপের শীর্ষস্থান ও আরেক দলের বিদায় নিশ্চিত-নিয়মরক্ষার ম্যাচের প্রথমার্ধে লড়াইটা হলো বেশ জমজমাট। বিরতির পর আর তেমন চ্যালেঞ্জ জানাতে পারল না নর্থ মেসিডোনিয়া। দারুণ জয় দিয়ে গ্রুপ পর্ব শেষ করল নেদারল্যান্ডস।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 June 2021, 05:54 PM
Updated : 21 June 2021, 06:57 PM

আমস্টারডামের ইয়োহান ক্রুইফ অ্যারেনায় সোমবার রাতে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ‘সি’ গ্রুপের শেষ রাউন্ডে ৩-০ গোলে জিতেছে নেদারল্যান্ডস। মেমফিস ডিপাইয়ের গোলে দলটি এগিয়ে যাওয়ার পর জোড়া গোল করেন জর্জিনিয়ো ভেইনালডাম।

তিন ম্যাচে শতভাগ সাফল্যে নেদারল্যান্ডসের পয়েন্ট ৯।

একই সময়ে শুরু হওয়া আরেক ম্যাচে ইউক্রেনকে ১-০ গোলে হারিয়ে শেষ ষোলোয় উঠেছে অস্ট্রিয়া, তাদের পয়েন্ট ৬। ৩ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় ইউক্রেন রইল ছয় তৃতীয় স্থান পাওয়া দলগুলোর সেরা চারটির একটি হয়ে পরের ধাপে যাওয়ার অপেক্ষায়।

প্রথম দুই ম্যাচে হেরে সব আশা ফুরিয়ে যাওয়া নর্থ মেসিডোনিয়ার পাওয়ার ছিল একটাই, শেষটা অবিশ্বাস্য কিছু করে রাঙানোর। সুযোগ এসেছিল, কিন্তু কাজে লাগাতে পারেনি দলটি।

দশম মিনিটে আলেকসান্দার ত্রাইকোভস্কি বল জালে পাঠালে উল্লাসে মাতে তারা, তবে কিঞ্চিৎ ব্যবধানে অফসাইডে ছিলেন তিনি। পাল্টা আক্রমণে ২২তম মিনিটে আরেকটি দারুণ সুযোগ তৈরি করেন মায়োর্কার এই ফরোয়ার্ড, এবার ভাগ্য সহায় হয়নি। তার নিচু শট গোলরক্ষককে ফাঁকি দিলেও পোস্টে বাধা পায়।

দুই মিনিট পরেই উল্টো পিছিয়ে পড়ে তারা। ডান দিক থেকে ডোনিয়েল মালেনের পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে নিচু শটে গোলটি করেন কদিন আগে বার্সেলোনায় যোগ দেওয়া ডিপাই।

দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে মাটাইস ডি লিখটের হেড গোললাইন থেকে ফেরান ত্রিকোভস্কি। পরের মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ভিনালডাম। বাঁ দিক থেকে ডিপাইয়ের গোলমুখে বাড়ানো বল অনায়াসে জালে ঠেলে দেন পিএসজিতে যোগ দেওয়া এই মিডফিল্ডার।

সাত মিনিট পর ব্যবধান আরও বাড়িয়ে জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেন ভেইনালডাম। ডিপাইয়ের শট গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে ফেরালেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ফিরতি বল ফাঁকা জালে পাঠান অধিনায়ক।

৬৬তম মিনিটে ডিপাইকে তুলে বেগহর্সটকে নামান কোচ। প্রথম ছোঁয়াতেই গোল পেতে পারতেন তিনি, তবে তার জোরালো শট লাগে ক্রসবারে।

এর দুই মিনিট পর গোরান পানদেভকে তুলে নেন নর্থ মেসিডোনিয়া কোচ। শেষ হলো দেশটির প্রথম ও সর্বোচ্চ গোলদাতা এবং সর্বাধিক ম্যাচ খেলার রেকর্ডধারীর পথচলা। এই ম্যাচ দিয়েই আন্তজার্তিক ক্যারিয়ারের ইতি টানেন ৩৭ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড।     

৭৩তম মিনিটে আবারও জালে বল পাঠায় আগের দুই ম্যাচে দুই গোল করা দলটি। কিন্তু এবারও অফসাইডের পতাকা ওঠে, বাকি সময়ে আর তেমন কিছু করতে পারেনি তারা।

প্রথমবারের মতো কোনো মেজর টুর্নামেন্টে খেলতে এসে বড় কোনো চমক বা অঘটনের জন্ম দিতে পারেনি নর্থ মেসিডোনিয়া। পয়েন্টের হিসেবে ফিরছে খালি হাতেই, তবে শক্তিতে এগিয়ে থাকা দলগুলোর বিপক্ষে তাদের পারফরম্যান্স প্রশংসা কুড়িয়েছে।

আর সাত বছর পর মেজর টুর্নামেন্টে ফিরে টানা তিন জয়ে দুর্দান্ত শুরু করল নেদারল্যান্ডস। ফ্রাঙ্ক ডি বোরের দলের সামনে নকআউট পর্বে পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক