আবাহনীকে আটকে দিল পুলিশ

বেলজিয়ামের বিখ্যাত দল অ্যান্ডারলেখটের একাডেমিতে বেড়ে ওঠা ক্রিস্তিয়ানো কোয়াকো বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে অভিষেক রাঙালেন জোড়া গোলে। কোত দি ভোয়ার এই ফরোয়ার্ডের নৈপুণ্যে আবাহনী লিমিটেডকে রুখে দিল পুলিশ এফসি।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 April 2021, 03:26 PM
Updated : 30 April 2021, 05:52 PM

মাস দুয়েকের বিরতির পর শুক্রবার প্রিমিয়ার লিগের ফেরার দিনে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দুই দলের ম্যাচটি ২-২ ড্র হয়েছে।

প্রথম পর্বে পুলিশ এফসির বিপক্ষে ১-০ গোলে কষ্টের জয় দিয়ে লিগ শুরু করা আবাহনী ১৩ ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে। সমান পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে এক ম্যাচ কম খেলা শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব।

দিনের প্রথম ম্যাচে তিন বিদেশি ফরোয়ার্ডের নৈপুণ্যে উত্তর বারিধারাকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়া বসুন্ধরা কিংস ১৩ ম্যাচে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে।

মাঠে নামার আগেই একটা হতাশাজনক খবর পায় আবাহনী। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দেশে চলছে লকডাউন ও ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা। এ বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে এএফসি কাপের প্লে-অফ থেকে আবাহনীকে ‘বাদ’ দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানায় এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি)।

আগামী ৫ থেকে ৭ মের মধ্যে মালদ্বীপের দল ইগলসের বিপক্ষে এএফসির কাপের গ্রুপ পর্বে ওঠার প্লে-অফের ম্যাচ খেলতে চেয়েছিল আবাহনী। ম্যাচটি মূলত হওয়ার কথা ছিল গত ১৪ এপ্রিলে।

শুরু থেকে আক্রমণ করলেও গোলের দেখা পাচ্ছিল না আবাহনী। পাল্টা আক্রমণে মাঝে মধ্যে ভীতি ছড়াচ্ছিল পুলিশ এফসিও। ২১তম মিনিটে দলটির কোত দি ভোয়ার ফেদেরিকো পোডার ডি-বক্সের বাইরে থেকে বাঁকানো শট ফিস্ট করে ফেরান আবাহনী গোলরক্ষক শহিদুল আলম সোহেল।

৩৪তম মিনিটে রাফায়েল অগাস্তোর কাটব্যাকে ডি-বক্সে ফাঁকায় থাকা জুয়েল রানা ডান পায়ের দারুণ শটে আবাহনীকে এগিয়ে নেন।

৪১তম মিনিটে পোডার হেড পাস বুক দিয়ে ঠেলে একটু এগিয়ে নিয়ে গায়ের সঙ্গে সেঁটে থাকা ডিফেন্ডারকে প্রতিরোধের সুযোগ না দিয়ে ডান পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করেন কোয়াকো।

পরের মিনিটেই সতীর্থের ক্রস কেরভেন্স ফিলস বেলফোর্ট হেডে নামিয়ে দেওয়ার পর ডান পায়ের টোকায় আবাহনীকে আবার এগিয়ে নেন শুরুর দিকে লক্ষ্যভ্রষ্ট শটে বারবার হতাশ করা নাইজেরিয়ার ফরোয়ার্ড সানডে চিজোবা।

৬০তম মিনিটে ফের সমতা আসা গোলে আবাহনীর রক্ষণের দায় কম নয়। ডি-বক্সের ভেতরে চার ডিফেন্ডারও আটকাতে পারেননি কোয়াকোকে। অ্যান্ডারলেখটের একাডেমিতে তিন বছর কাটানো এই ফরোয়ার্ড চার ডিফেন্ডারের ফাঁক দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন।

জয়ের জন্য মরিয়া আবাহনী দুর্ভাগ্যের শিকার হয় ৭১তম মিনিডে। ডি-বক্সের একটু ওপর থেকে আফগান ডিফেন্ডার মাসিহ সাইঘানির বাঁকানো ফ্রি কিক পোস্টে লেগে ফিরে। এরপর বেলফোর্টের দুর্বল হেড, সাইঘানির আরেকটি হেডও পারেনি কাঙিক্ষত গোল এনে দিতে।

দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে জয়সূচক গোল পেতে পারত পুলিশ এফসি। কিন্তু আল আমিনের স্লাইড শট আটকান সোহেল।

টানা দুই হার দিয়ে প্রথম লেগ শেষ করা পুলিশ এফসি ফিরতি লেগ শুরু করল পয়েন্ট নিয়ে। ১৩ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট পাকির আলির দলের।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক