মিলানের অজেয় যাত্রা থামাল ইউভেন্তুস

উড়তে থাকা এসি মিলানকে মাটিতে নামাল ইউভেন্তুস। সান সিরোর দলটির অজেয় যাত্রা থামিয়ে কমিয়ে আনলো ব্যবধান। ফেদেরিকো চিয়েসার দ্যুতি ছড়ানোর দিনে স্বরূপে দেখা গেল ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নদের।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Jan 2021, 09:45 PM
Updated : 7 Jan 2021, 08:49 AM

সেরি আর ম্যাচে বুধবার রাতে ৩-১ গোলে জিতেছে আন্দ্রেয়া পিরলোর দল। জোড়া গোল করেন চিয়েসা, অন্য গোলটি ওয়েস্টন ম্যাককেনির। মিলানের একমাত্র গোলটি করেন দাভিদে কালাব্রিয়া।   

সেরি আয় ২৭ ম্যাচ পর হারল মিলান। এর আগে সবশেষ তারা হেরেছিল গত আসরে জেনোয়ার বিপক্ষে, ২-১ গোলে। গত বছর ৮ মার্চের সেই ম্যাচও ঘরের মাঠে হেরেছিল ১৮ বারের লিগ চ্যাম্পিয়নরা।

আক্রমণাত্মক শুরু করা ইউভেন্তুসই পায় প্রথম সুযোগ। জানলুকা ফ্রাবোত্তার পাস থেকে পাওলো দিবালার শট এক জনের গায়ে লেগে চলে যায় গোলরক্ষক জানলুইজি দোন্নারুম্মা বরাবর। 

একাদশ মিনিটে নিজেদের পেনাল্টি বক্সে রদ্রিগো বেন্তানকুরের ব্যাক-হিল ফ্লিকে বিপদে পড়তে যাচ্ছিল ইউভেন্তুস। সামুয়েল কাস্তিয়াহোর শট কোনোমতে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন ভয়চেখ স্ট্যাসনি।

ষোড়শ মিনিটে প্রায় এগিয়েই যাচ্ছিল ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। চিয়েসার ভলিতে বল পোস্ট কাঁপায়। বেঁচে যায় মিলান।

দুই মিনিট পরেই অবশ্য জালের দেখা পান চিয়েসা। দিবালার সঙ্গে ‘ওয়ান-টু-ওয়ান’ খেলে এগিয়ে যান তিনি। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের দুর্দান্ত ব্যাক-হিল ফ্লিকে বল পেয়ে আড়াআড়ি শটে দূরের পোস্ট দিয়ে জাল খুঁজে নেন তিনি।

২১তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার দারুণ সুযোগ আসে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর সামনে। চিয়েসার চমৎকার ক্রস বিপজ্জনক জায়গায় পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি তিনি।

আগের ১৭ ম্যাচে অন্তত দুটি করে গোল করা মিলান যেন জেগে ওঠে পিছিয়ে পড়ার পর। অ্যারন র‌্যামজির লক্ষ্যহীন ক্রসে বল পেয়ে যান রাফায়েল লিয়াও। তার শট কর্নারের বিনিময়ে ফেরান ইউভেন্তুস গোলরক্ষক।

আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে জমে ওঠা ম্যাচে ৪১তম মিনিটে সমতা টানেন কালাব্রিয়া। লিয়াওয়ের চমৎকার পাসে ডি-বক্সের মাথা থেকে বুলেট গতির শটে জাল খুঁজে নেন এই ইতালিয়ান ডিফেন্ডার। জায়গা থেকে নড়ার সুযোগ পাননি স্ট্যাসনি।

আক্রমণের শুরুতে আন্দ্রিয়া র‌্যাবোঁকে কাঁধ দিয়ে জোরালো ধাক্কা দেন হাকান কালহানোগ্লু। ইউভেন্তুসের খেলোয়াড়রা জোরালো প্রতিবাদ করলেও ভিএআরে টিকে যায় গোল। 

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে দূরপাল্লার শটে স্ট্যাসনির পরীক্ষা নেন দিয়োগো দালোত। ঝাঁপিয়ে মিলান ডিফেন্ডারের চেষ্টা ব্যর্থ করে দেন ইউভেন্তুস গোলরক্ষক।

মিলানের আক্রমণের ঝাপটা সামলে পাল্টা আক্রমণে যায় ইউভেন্তুস। ৫৬তম মিনিটে এই অর্ধে নিজেদের প্রথম সুযোগটা হাতছাড়া করেন র‌্যামজি। মাটাইস ডি লিখটের চমৎকার ক্রস ফাঁকায় পান তিনি। কিন্তু লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নিয়ে দলকে হতাশ করেন ওয়েলসের এই মিডফিল্ডার।   

প্রতি আক্রমণ থেকে ৬২তম মিনিটে আবারও ইউভেন্তুসকে এগিয়ে নেন চিয়েসা। দিবালার চমৎকার ক্রস তাকে খুঁজে নেওয়ার সময় সামনে ছিলেন মিলানের দুই খেলোয়াড়। তাদের মাঝ দিয়ে বুলেট গতির নিচু শটে জাল খুঁজে নেন চিয়েসা। ঝাঁপিয়েও বলের নাগাল পাননি দোন্নারুম্মা।

গোলের পরপরই চিয়েসা ও দিবালাকে তুলে নেন ইউভেন্তুস কোচ পিরলো।

বদলি নামার কিছুক্ষণের মধ্যেই জালের দেখা পেয়ে যাচ্ছিলেন ম্যাককেনি। রোনালদোর পাস থেকে তার শট কোনোমতে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন মিলান গোলরক্ষক।

গোলের জন্য অবশ্য খুব বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি ম্যাককেনিকে। দেয়ান কুলুসেভস্কির কাছ থেকে বল পেয়ে জোরালো শটে জাল খুঁজে নেন এই মার্কিন মিডফিল্ডার।   

বাকি সময়ে জালের দেখা পায়নি কোনো দলই। সেরি আর চলতি আসরে প্রথম হারের স্বাদ পাওয়া মিলান ১৬ ম্যাচে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে আছে শীর্ষে। এক পয়েন্ট কম নিয়ে দুই নম্বরে ইন্টার মিলান।

৩৩ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে আছে রোমা। ১৫ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে উঠে এসেছে গত নয়বারের চ্যাম্পিয়ন ইউভেন্তুস।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক