কৌশল পরিবর্তনে আগ্রহী নন ডে

কাতারে গিয়ে স্টুয়ার্ট ওয়াটকিস মূলত কাজ করেছেন প্রধান কোচ জেমি ডের নির্দেশনা অনুযায়ী। করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত হওয়ায় ডে ফের হাল ধরবেন দলের। পরিকল্পনা, কৌশল আগের মতোই থাকবে বলে জানালেন এই ইংলিশ কোচ।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Dec 2020, 11:58 AM
Updated : 1 Dec 2020, 11:58 AM

২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের প্রিলিমিনারি রাউন্ডের দ্বিতীয় ধাপের ম্যাচে আগামী শুক্রবার কাতারের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ‘ই’ গ্রুপে প্রথম লেগে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের আয়োজকদের কাছে ২-০ গোলে হেরেছিল দল।

বাছাইয়ের ম্যাচ খেলতে গত ১৯ নভেম্বর কাতারে পাড়ি জমায় বাংলাদেশ দল। নেপালের বিপক্ষে দ্বিতীয় প্রীতি ম্যাচের আগে কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ায় সেসময় দলের সঙ্গে যেতে পারেননি ডে।

গত সোমবার ডের কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসে বলে জানায় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। আগামী বুধবার তার কাতারে পাঠানোর চেষ্টা চলছে বলেও জানায় তারা।

হোটেলবন্দি সময় থেকে মুক্তির স্বাদ অনুভব করছেন ডে। জানালেন, কাজে ফিরতে মুখিয়ে থাকার কথা। কাতারে গিয়ে খেলা দুই প্রস্তুতি ম্যাচে হেরেছে দল। আর্মি দলের কাছে ৩-২ ব্যবধানে হারের পর লুসাইল স্পোর্টস ক্লাবের কাছে ১-০ গোলে হারে জামাল-জীবনরা। তবে প্রস্তুতি নিয়ে খুশি কোচ।

“কোচিং স্টাফ, খেলোয়াড়দের মাঝে ফেরা এবং ফের দলের অংশ হতে পারা আমার জন্য চমৎকার ব্যাপার। গত ২-৩ সপ্তাহ মিস করেছি।”

“দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে ছেলেরা খুবই ভালো করেছে। ফল মূখ্য ছিল না; লক্ষ্য ছিল ম্যাচ ফিটনেসের দিকে। সবাই ফিট এবং ভালো আছে; ম্যাচের জন্য মুখিয়ে আছে। আমরা অনুভব করছি, অল্প সময়ে সর্বোচ্চ যতটা ভালো প্রস্তুতি নেওয়া যায়, তা নিতে পেরেছি। কাতার ম্যাচের অভিজ্ঞতা নিতে মুখিয়ে আছি আমরা।”

কাতার ম্যাচের কৌশল নিয়ে অবশ্য কিছুই বলেননি ডে। শুধু জানিয়েছেন, যে পরিকল্পনার ছক ওয়াটকিসের হাতে দিয়েছিলেন, চলবে সে অনুযায়ী।

“খুব বেশি পরিবর্তন হবে না। দল ভালো হাতে ছিল…ওয়াটকিস অভিজ্ঞ কোচ। সে দারুণ কাজ করেছে। আমি শুধু সবাইকে দেখার অপেক্ষায় আছি। আবারও মাঠে ফেরা, ছেলেদের খেলা দেখা এবং ম্যাচের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকতে পারাটা আমার জন্য দারুণ হবে।”

“লম্বা সময় ধরে আমি রুমের মধ্যে ছিলাম। এটা মানসিক ও শারীরিকভাবে খুবই কঠিন বিষয় ছিল আমার জন্য। আমার করোনাভাইরাসের উপসর্গ ছিল। তবে সেটা শেষ। এখন আমি সামনের ম্যাচে শুধু মনোযোগই দিতে পারব না, দলের সঙ্গে ম্যাচে সম্পৃক্তও থাকতে পারব।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক