জোতা-সালাহর গোলে লিভারপুলের জয়

গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর দলকে এগিয়ে নিলেন দিয়েগো জোতা। শেষ দিকে ব্যবধান বাড়ালেন মোহামেদ সালাহ। মিতউইলানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টানা দ্বিতীয় জয় পেয়েছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 Oct 2020, 10:04 PM
Updated : 27 Oct 2020, 10:48 PM

নিজেদের মাঠ অ্যানফিল্ডে মঙ্গলবার ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছে প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়নরা।

আক্রমণভাগের তিন সেনানী সালাহ, সাদিও মানে ও রবের্তো ফিরমিনোকে বেঞ্চে রেখে নামা লিভারপুলের প্রথমার্ধের খেলায় ছিল না চেনা ধার। প্রথম আধা ঘণ্টায় তারা গোলের উদ্দেশে শট নিতে পারে কেবল একটি, সব মিলে বিরতির আগে পাঁচটি শট নিলেও কোনোটাই লক্ষ্যে ছিল না।

ডেনিশ চ্যাম্পিয়ন মিতউইলান অবশ্য তৃতীয় মিনিটেই ভালো একটি সুযোগ পেয়েছিল। কাজে লাগাতে পারেননি তাদের ডেনিশ মিডফিল্ডার আন্দের্স দ্রায়ের। তার শট ঠেকান গোলরক্ষক আলিসন।

৩০তম মিনিটে একটি ধাক্কা খায় প্রথম ম্যাচে আয়াক্সকে হারানো লিভারপুল। চোট নিয়ে মাঠ ছাড়েন ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফাবিনিয়ো।

বিরতির পর আক্রমণে ধার বাড়ে স্বাগতিকদের। ৫৫তম মিনিটে লক্ষ্যে প্রথম শটেই মেলে জালের দেখা। জেরদান শাচিরি ডি-বক্সের ডান দিকে পাস দেন ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডকে। তার বাড়ানো বল খুব কাছ থেকে ফাঁকা জালে পাঠান পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড জোতা।

সব প্রতিযোগিতা মিলে এটি লিভারপুলের ১০ হাজারতম গোল, যা এলো তাদের প্রথম গোলের ১২৮ বছর পর।

৬০তম মিনিটে সালাহ ও মানেকে একসঙ্গে বদলি নামান কোচ, পরে নামান ফিরমিনোকেও। কিন্তু তেমন কিছু করে দেখাতে পারছিলেন না কেউ।

যোগ করা সময়ে পেনাল্টি থেকে দ্বিতীয় গোলটি করেন সালাহ। ডি-বক্সে মিসরের এই ফরোয়ার্ড ফাউলের শিকার হলে স্পট কিকের বাঁশি বাজান রেফারি।

দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে লিভারপুল।

গ্রুপের আরেক ম্যাচে আতালান্তার মাঠে দুই গোলে এগিয়ে গিয়েও ২-২ ড্র করেছে আয়াক্স।

৪ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে ইতালিয়ান দল আতালান্তা। ১ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আয়াক্স। মিতউইলান এখনও কোনো পয়েন্ট পায়নি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক