রিয়ালকে ‘বড় বিপদের’ জন্য বুত্রাগেইনোর সতর্কবাণী

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে রিয়াল মাদ্রিদের ভুলের কোনো সুযোগ দেখছেন না দলটির সাবেক স্ট্রাইকার এমিলিও বুত্রাগেইনো। সামান্য ভুলেও পা হড়কাতে পারে বলে বেনজেমা-রামোসদের সতর্ক করে দিয়েছেন ক্লাবটির প্রাতিষ্ঠানিক সম্পর্ক বিভাগের এই ডিরেক্টর।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 Oct 2020, 02:57 PM
Updated : 2 Oct 2020, 04:08 PM

রেকর্ড ১৩ বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়ালের সঙ্গে ‘বি’ গ্রুপে আছে তিনবারের ইউরোপ সেরা ইন্টার মিলান, ইউক্রেনের শাখতার দোনেৎস্ক ও জার্মানির বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখ।

কাগজে-কলমে গ্রুপের সেরা দল রিয়াল। তবে আন্তোনিও কন্তের কোচিংয়ে আবারও দারুণ ফুটবল খেলতে শুরু করেছে ইন্টার। গত মৌসুমে তারা খেলেছে ইউরোপা লিগের ফাইনালে। ইউক্রেনিয়ান চ্যাম্পিয়ন শাখতার যে কোনো দলকে হারানোর ক্ষমতা রাখে, বিশেষ করে নিজেদের মাঠে তারা বেশ শক্তিশালী দল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তারা মোটামুটি নিয়মিত। এছাড়া কোচ মার্কো রোসার কোচিংয়ে জার্মানির অন্যতম শক্তিশালী দল হয়ে উঠেছে মনশেনগ্লাডবাখও।

বুত্রাগেইনো তাই মনে করেন, গ্রুপ পর্ব জিনেদিন জিদানের জন্য সহজ হবে না। রিয়াল মাদ্রিদ টিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ নিয়ে নিজের মত তুলে ধরেন সাবেক এই স্প্যানিশ স্ট্রাইকার।

“আমরা জানি এই প্রতিযোগিতাটা কেমন, সবচেয়ে চাহিদাপূর্ণ এবং মর্যাদাকর। চাওয়া থাকবে সর্বোচ্চ। উঁচু পর্যায়ের এবং ঐতিহ্যবাহী দলগুলোর প্রতিনিধিত্ব করে এই প্রতিযোগিতাটি। আমাদেরকেও সেরাটা মেলে ধরতে হবে।”

“আমাদের তিন প্রতিপক্ষ ভিন্ন স্টাইলের। শাখতার খুবই আক্রমণাত্মক খেলে। ইন্টার তো ইন্টারই, তাদের ইতিহাস রয়েছে এবং আমরা জানি তারা নিজেরা কী করতে পারে। মনশেনগ্লাডবাখ খুব ভয়ঙ্কর। দুর্দান্ত গতিময় জার্মান দল। সব প্রতিপক্ষের বিপক্ষেই আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। যে কোনো ভুলে বড় বিপদ হতে পারে। দর্শকদের জন্য গ্রুপটা হবে আকর্ষণীয়।”

এটাকে ভারসম্যপূর্ণ ও শক্ত গ্রুপ বলছেন ইন্টার মিলানের ভাইস প্রেসিডেন্ট হাভিয়ের জানেত্তি। তবে স্কাই স্পোর্টসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সব বাধা সরিয়ে এগিয়ে যাওয়ার কথা বলেন এই আর্জেন্টাইন।

“গ্রুপটা খুবই ভারসাম্যপূর্ণ, এখানে আমাদের লড়াই করতে হবে। প্রতিটি ম্যাচেই আমাদেরকে বাঁধাগুলো সরানোর মুখোমুখি হতে হবে; গুরুত্বপূর্ণ কিছু করার অভিলাষও থাকতে হবে। কেবল রিয়াল মাদ্রিদ নয়, লড়াই করার মতো অস্ত্র অন্য দুই দলেও রয়েছে। আমাদের অবশ্যই সেখানে খুব মনোযোগী হতে হবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক