পুরোদমে অনুশীলনের অপেক্ষায় রোমানরা

করোনাভাইরাসের থাবায় ক্যাম্প বন্ধ থাকলেও দারুণ উদ্যোগ নিয়েছিল বাংলাদেশ আর্চারি ফেডারেশন। রোমান-ইতিদেরকে শুধু ধনুক পাঠিয়ে দিয়েছিল অনুশীলনের জন্য। তা দিয়েই টুকটাক অনুশীলন চালিয়ে নিয়েছেন আর্চাররা। এখন তারা দিন গুনছেন ক্যাম্পে ফেরার।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 August 2020, 09:01 AM
Updated : 1 August 2020, 09:01 AM

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গত মার্চে শহীদ আহসানউল্লাহমাস্টার স্টেডিয়ামের ক্যাম্প বন্ধ করে দেয় ফেডারেশন। টঙ্গির এ মাঠেই সারা বছর অনুশীলনচলে রোমানদের।

ক্যাম্প শুরুর দিনক্ষণ এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তবে আর্চারিফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী রাজীব উদ্দিন আহমেদ চপল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকেজানালেন অগাস্টের ৮ থেকে ১০ তারিখের মধ্যে ক্যাম্প শুরুর পরিকল্পনা।

“ক্রীড়া মন্ত্রণালয়েরচিঠিটা তৈরি আছে কিন্তু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ক্লিয়ারেন্স এখনও আমরা পাইনি। আশা করছি,ঈদের পর পরই পেয়ে যাব। ৮ থেকে ১০ অগাস্টের মধ্যে ক্যাম্প শুরু করতে চাই আমরা।”

করোনাভাইরাসের আতঙ্ক এখনও কাটেনি। প্রতিদিনই আসছে আক্রান্তহওয়ার এবং মৃত্যুর খবর। ক্যাম্পে ফিরলেও আর্চারদের নিয়মের মধ্যে থাকতে হবে বলে জানালেনচপল।

“সবাই ক্যাম্পেআসার পর আমরা নিয়ম মেনে কোয়ারেন্টাইন করব। এরপর মনের প্রশান্তির জন্য সরকারি কোনো মেডিকেলথেকে সবার করোনভাইরাস পরীক্ষা করব।”

বাড়িতে থাকলেও কোচের সঙ্গে আলোচনা করে আর্চারদের অনুশীলনেরমধ্যে রাখার কথাও জানালেন তিনি।

“আর্চারদের শুধুধনুক পাঠানোর বিষয়টি নিয়ে কোচের সঙ্গে আলোচনা করলাম। তিনিও বললেন এটা ভালো উদ্যোগ।যে পরিস্থিতি, তাতে তীর পাঠানো সম্ভব নয়। তাই ধনুক পাঠিয়ে দিয়েছিলাম, যেন খেলোয়াড়রারাঅন্তত অনুশীলনের মধ্যে থাকতে পারে।”

গত এসএ গেমসে হ্যাটট্রিক সোনা জেতা আর্চার রোমান সানাওজানালেন ক্যাম্পে ফিরতে মুখিয়ে থাকার কথা।

“ফেডারেশন থেকেযতদূর শুনেছি অগাস্টের ৮ থেকে ১০ তারিখের দিকে ক্যাম্প শুরু হবে। আমরাও ক্যাম্পে ফিরতেউদগ্রীব হয়ে আছি।”

“গত মাসের শুরুরদিকে ফেডারেশন আমাদের শুধু ধনুক পাঠিয়ে দিয়েছিল। তীর ছাড়া ওটা দিয়েই অনুশীলন করছি।কোচও সবসময় যোগাযোগ রেখেছিলেন। নির্দেশনা দিয়েছিলেন অনুশীলনের। এতে আমাদের খুব উপকারহয়েছে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক