রামোসের গোলে শিরোপার পথে রিয়ালের আরেক ধাপ

গত দুই আসরের মতো এবারও আথলেতিক বিলবাওয়ের মাঠে পয়েন্ট হারাতে বসেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। শেষ পর্যন্ত ব্যবধান গড়ে দিলেন সের্হিও রামোস। তার সফল স্পট কিকে লিগ শিরোপা পুনরুদ্ধারের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেল জিনেদিন জিদানের দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 July 2020, 01:57 PM
Updated : 5 July 2020, 10:05 PM

সান মামেসে রোববার স্থানীয় সময় দুপুরে শুরু হওয়া ম্যাচে ১-০ গোলে জেতে মাদ্রিদের দলটি। দারুণ জয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাকে ৭ পয়েন্টে পেছনে ফেলল স্পেনের সফলতম দলটি।

৩৪ ম্যাচে ২৩ জয় ও আট ড্রয়ে রিয়ালের পয়েন্ট হলো ৭৭। এক ম্যাচ কম খেলা বার্সেলোনার পয়েন্ট ৭০। অবশ্য রোববার রাতেই ভিয়ারিয়ালের মাঠে জিতে ব্যবধান কমানোর সুযোগ আছে গত দুইবারের চ্যাম্পিয়নদের।

গেতাফে ম্যাচের মাত্র ৬২ ঘণ্টা পর খেলতে নেমে ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ পায় রিয়াল। মার্কো আনেসিওর ফ্রি-কিক গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে ফেরানোর পর আলগা বল ডান দিকে পেয়ে গোলমুখে অরক্ষিত করিম বেনজেমাকে ক্রস দেন দানি কারভাহাল। কিন্তু বল একটু উঁচুতে থাকায় ঠিকমতো হেড করতে পারেননি ফরাসি ফরোয়ার্ড।

দুই মিনিট পর রিয়ালের রক্ষণে ভীতি ছড়ান ইনাকি উইলিয়ামস। ছুটে এসে তার শট প্রতিহত করেন মার্সেলো। ষোড়শ মিনিটে রাউল গার্সিয়ার হেড ঠেকিয়ে জাল অক্ষত রাখেন রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া।

প্রথম ৩০ মিনিটের রোমাঞ্চকর ফুটবল ‘কুলিং ব্রেক’ এর পর গতি হারায়। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে বেনজেমা আরেকটি সুযোগ পেয়েছিলেন বটে; তবে আসেনসিওর ক্রসে লাফিয়েও ঠিকমতো হেড করতে পারেননি তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধেও অধিকাংশ সময় বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের রক্ষণে চাপ ধরে রাখে রিয়াল। তবে তাদের আক্রমণে ছিল না তেমন ধার। অবশেষে ৭৩তম মিনিটে স্পট কিকে দলকে এগিয়ে নেন রামোস। ডি-বক্সে মার্সেলো ফাউলের শিকার হলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি।

লিগে শেষ ১২ ম্যাচে রামোসের এটি সপ্তম গোল। আসরে রিয়ালের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতার গোল হলো ১০টি। লা লিগায় এই স্প্যানিশ ডিফেন্ডারে মোট গোল হলো রেকর্ড ৭১টি।

৮৮তম মিনিটে সব অনিশ্চয়তার ইতি টানতে পারতেন বেনজেমা। তবে ভিনিসিউস জুনিয়রের সঙ্গে বল দেওয়া-নেওয়া করে তার নেওয়া শট পা বাড়িয়ে রুখে দেন উনাই সিমোন।

যোগ করা সময়ে কর্নারে রিয়ালের রক্ষণে ভীতি ছড়ায় বিলবাও। শেষ পর্যন্ত গোলের উদ্দেশ্যে শটই নিতে পারেনি তারা। বিলবাওয়ের মাঠে জয় খরা কাটানোর পাশাপাশি শিরোপার সুবাস নিয়ে মাঠ ছাড়ে জিদানের দল।

এর আগে এই মাঠে সবশেষ জিতেছিল ২০১৭ সালের মার্চে; ২-১ গোলে। সেবারই শেষ লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা। গত আসরে ১-১ ও তার আগের বার গোলশূন্য ড্র করে ফিরেছিল মাদ্রিদের দলটি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক