ইকার্দি-এমবাপের নৈপুণ্যে মার্সেইকে উড়িয়ে দিল পিএসজি

চমৎকার ফিনিশিংয়ে নিজেদের সামর্থ্য দেখালেন মাউরো ইকার্দি ও কিলিয়ান এমবাপে। মিডফিল্ডে রাজত্ব করলেন আনহেল দি মারিয়া। প্রতিটি গোলে রাখলেন দারুণ অবদান। ক্লাসিকোয় মার্সেইয়ের জালে গোল উৎসব করল পিএসজি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 Oct 2019, 09:07 PM
Updated : 27 Oct 2019, 10:04 PM

লিগ ওয়ানে রোববার রাতে ঘরের মাঠে ৪-০ গোলে জিতেছে টমাস টুখেলের দল। ফরাসি চ্যাম্পিয়নদের হয়ে প্রথমার্ধে দুটি করে গোল করেন ইকার্দি ও এমবাপে। 

শুরু থেকে মার্সেইয়ের রক্ষণে ভীতি ছড়ান ইকার্দি। গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় একবার বেঁচে যায় অতিথিরা। তবে বেশিক্ষণ ঠেকিয়ে রাখা যায়নি ছন্দে থাকা আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারকে। দশম মিনিটে এগিয়ে নেন দলকে।

দি মারিয়ার দারুণ ক্রসে লাফিয়ে হেড নেন অরক্ষিত ইকার্দি। গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে কোনোমতে ঠেকিয়ে দেন। ফিরতি বলে বুলেট গতির শটে ঠিকানা খুঁজে নেন ইন্টার মিলান থেকে ধারে খেলতে আসা এই স্ট্রাইকার।

২৩তম মিনিটে এমবাপে ও ইকার্দির দুটি চেষ্টা দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন মার্সেই কিপার। চার মিনিট পর আর পারেননি। ব্যবধান বাড়ান ইকার্দি। বাতাসে আবার নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দেন তিনি। মার্কো ভেরাত্তির চমৎকার ক্রসে ছুটে গিয়ে দারুণ হেডে বল পাঠান জালে।

২৯তম মিনিটে হ্যাটট্রিক হয়ে যেতে পারতো তার। তবে এবার তাকে জাল পেতে দেননি মার্সেই কিপার। দুই মিনিট পর ঠেকিয়ে দেন এমবাপের বুলেট গতির শট।

একের পর এক আক্রমণ করে যাওয়া পিএসজিতে বেশিক্ষণ ঠেকিয়ে রাখা যায়নি। দি মারিয়ার কাছ থেকে বল পেয়ে ৩৩তম মিনিটে স্কোর লাইন ৩-০ করে ফেলেন অরক্ষিত এমবাপে। সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মার্সেইয়ের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো প্রথমার্ধে তিন গোল করল প্যারিসের দলটি।

৪৪তম মিনিটে প্রতি আক্রমণ থেকে ব্যবধানে আরও বাড়ায় পিএসজি। মাঝ মাঠে বল পেয়ে একটু এগিয়ে দি মারিয়া বাড়ান এমবাপেকে। সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডারকে এড়িয়ে ডি বক্সের বাইরে থেকে নিখুঁত ফিনিশিংয়ে ঠিকানা খুঁজে নেন তরুণ ফরাসি ফরোয়ার্ড।

আগের ম্যাচেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগে হ্যাটট্রিক করেছিলেন তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধে নিজেদের রক্ষণ গুছিয়ে নেয় মার্সেই। মাঝে মধ্যে আক্রমণেও যায়। আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে গোলের সুযোগ তৈরি করলেও কোনোটিই কাজে লাগাতে পারেনি পিএসজি।

১১ ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট শীর্ষে অবস্থান দৃঢ় করেছে টুখেলের দল। ১৯ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে নঁত। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে সাতে রয়েছে মার্সেই।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক