‘প্রথমার্ধের খেলা আরও ভালো হতে পারত’

জয় সবসময়ই আনন্দের। তবে তৃপ্তিদায়ক নয়। ভুটানকে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে হারানোর পর বাংলাদেশ কোচ জেমি ডের কণ্ঠে ফুটে উঠল সেটা। প্রথমার্ধে দল আরও ভালো খেলতে পারত বলে মনে করেন এই ইংলিশ কোচ।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Oct 2019, 04:16 PM
Updated : 3 Oct 2019, 04:17 PM

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার ইয়াসিনের দুই অর্ধেরদুই গোলে ২-০ ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ। প্রথম প্রীতি ম্যাচে ভুটানকে ৪-১ গোলেউড়িয়ে দিয়েছিল দল। টানা দুই জয়ে কাতার ম্যাচের আগে আত্মবিশ্বাস সঞ্চয় করে নিয়েছেডের শিষ্যরা।

আগামী ১০ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ২০২২ বিশ্বকাপ ও২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে কাতারের বিপক্ষে ‘ই’ গ্রুপে নিজেদেরদ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে দল। পাঁচ দিন পর খেলবে অ্যাওয়ে ম্যাচ; ভারতের বিপক্ষে।

প্রথমার্ধে খেলার ধারার বিপরীতে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশ বিরতিরআগে তেমন কোনো আক্রমণ শানাতে পারেনি। যেখানে প্রথম ম্যাচে ভুটানের রক্ষণে শুরুথেকে আধিপত্য করেছিল আক্রমণভাগ। ডেও তাই প্রথমার্ধ নিয়ে সন্তুষ্ট নন।

“ভুটান প্রথমার্ধে ভালো খেলেছে। দুটি সুযোগ তৈরি করেছে। আমরাওহাফ চান্স পেয়েছিলাম। আসলে ছেলেরা ক্লান্ত ছিল। তবে আমাদেরকে হাফ চান্সকে ফুল চান্সেপরিণত করতে হবে। প্রথমার্ধে আমাদের খেলা আরও ভালো হতে পারত। পরের সপ্তাহে কাতারেরবিপক্ষে ম্যাচ। তার আগে এই জায়গাগুলো নিয়ে কাজ করব।”

প্রথম ম্যাচে চার গোল দিয়ে একটি খেয়েছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয়ম্যাচে জাল অক্ষত। মাঝেমধ্যে ঝড়-ঝাপ্টা যা এসেছে, ভালোভাবে সামলেছেন আশরাফুল ইসলামরানার জায়গায় পোস্টের নিচে ফেরা শহীদুল আলম সোহেল। ক্লিনশিট নিয়ে ফেরায় খুশি ডে।

“আগের ম্যাচে আমরা ক্লিনশিট নিয়ে ফিরতে পারিনি। এ ম্যাচেপেরেছি। দল ব্যাক টু ব্যাক জয় পেলো। দ্বিতীয়ার্ধে ছেলেরা ভালো খেলেছে। কাতারম্যাচের আগে এটা আমাদের আত্মবিশ্বাস বাড়াবে। তবে ছেলেদের খেলায় আমি খুশি, কিন্তুতৃপ্ত নই।”

দুই অর্ধে হেডে লক্ষ্যভেদ করা ডিফেন্ডার ইয়াসিন দারুণ খুশিনিজের পারফরম্যান্সে, “অনেকদিন পর গোল পেলাম। মাঝে চোট ছিল। চোট কাটিয়ে ফিরেছি।গোলও পেলাম। আশা করি পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারব।”

হারলেও ভুটান অধিনায়ক চেনচো গাইয়েলতসেন দলের দ্বিতীয় ম্যাচেরপারফরম্যান্সের প্রশংসা করলেন।

“মাঠ আগের ম্যাচের চেয়ে ভালো ছিল। কিন্তু কিছুটা কর্দমাক্ত ছিল।দল আগের চেয়ে ভালো খেলেছে।”   

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক