বার্সেলোনার মাঠে ড্র করে নকআউট পর্বে টটেনহ্যাম

পিছিয়ে পড়ার পর দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়াল টটেনহ্যাম হটস্পার। শেষ দিকের গোলে বার্সেলোনার সঙ্গে ড্র করে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে উঠেছে ইংল্যান্ডের দলটি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Dec 2018, 10:03 PM
Updated : 11 Dec 2018, 11:33 PM

মঙ্গলবার রাতে কাম্প নউয়ে ‘বি’ গ্রুপে দুই দলের ফিরতি লেগের ম্যাচটি ১-১ সমতায় শেষ হয়। প্রথম লেগে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ৪-২ গোলে জিতেছিল বার্সেলোনা।

গ্রুপের অন্য ম্যাচে নিজেদের মাঠে পিএসভি আইন্দহোভেনের সঙ্গে ১-১ ড্র করেছে ইন্টার মিলান।

টটেনহ্যাম ও ইন্টারের পয়েন্ট সমান ৮ করে। মুখোমুখিলড়াইয়ে নিজেদেরমাঠে জিতেছেটটেনহ্যাম ওইন্টার। তবেপ্রতিপক্ষের মাঠেগোল করায়নকআউট পর্বেরটিকেট পায়মাওরিসিও পচেত্তিনোরদল। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনার পয়েন্ট ১৪।

আগেই গ্রুপ সেরা হয়ে যাওয়ায় টটেনহ্যামের বিপক্ষে তারকা ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসিসহ নিয়মিত একাদশের বেশ কয়েকজনকে বেঞ্চে রেখে শুরুর একাদশ সাজিয়েছিলেন বার্সেলোনা কোচ। হাঁটুর চোটে দলেই ছিলেন না আরেক ফরোয়ার্ড লুইস সুয়ারেস।

সেরা দুই ফরোয়ার্ডের অনুপস্থিতিতে অষ্টম মিনিটে দারুণ এক গোলে বার্সেলোনাকে এগিয়ে নেন উসমান দেম্বেলে। মাঝমাঠে ওয়ালকার পিটার্সের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে এক দৌড়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া ফ্রান্সের এই ফরোয়ার্ড  শেষ মুহূর্তে স্লাইড করা উইনক্সকে বোকা বানিয়ে বাঁ পায়ের নিখুঁত শটে জাল খুঁজে নেন।

৩০তম মিনিটে সমতায় ফেরার ভালো সুযোগ নষ্ট হয় টটেনহ্যামের। ড্যানি রোজের ক্রসে গোলমুখে টোকা দিতে ব্যর্থ সন হিয়ুং-মিন। একটু পর ইয়াসপের সিলেসেনকে একা পেয়েও লক্ষ্যভেদে ব্যর্থ দক্ষিণ কোরিয়ার এই ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধে বলের নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে থাকা টটেনহ্যাম একের পর এক আক্রমণ করতে থাকে। কিন্তু সিলেসেন পোস্টের নিচে ছিলেন দেয়াল হয়ে। ৪৯তম মিনিটে হ্যারি কেইনের শট ফিরিয়ে বার্সেলোনাকে এগিয়ে রাখেন সিলেসেন। ৫১তম মিনিটে এই ইংলিশ ফরোয়ার্ডের আরেকটি প্রচেষ্টা ঠিকানা খুঁজে পায়নি। একটু পর সিলেসেন বরাবর শট নিয়ে টটেনহ্যামের হতাশা আরও বাড়ান সন।

৬৩তম মিনিটে মুনির এল হাদ্দাদিকে তুলে নিয়ে মেসিকে নামান এরনেস্তো ভালভেরদে। ৭৫তম মিনিটে গোলমুখ থেকে লুকাস মৌরার হেড ফিরিয়ে বার্সেলোনার ত্রাতা সিলেসেন।

৮৫তম মিনিটে আর পারেননি নেদারল্যান্ডসের এই গোলরক্ষক। বাঁ দিক থেকে কেইনের বাড়ানো আড়াআড়ি বল নিখুঁত প্লেসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন সনের বদলি নামা ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার লুকাস। এ গোলেই সেরা ষোলো নিশ্চিত হয় মাউরিসিও পচেত্তিনোর দলের।

সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এ নিয়ে টটেনহ্যামের কাছে টানা চার  ম্যাচ অপরাজিত থাকল বার্সেলোনা। আগের তিন ম্যাচের দুটিতে জিতেছিল কাতালুনিয়ার দলটি। অন্য ম্যাচটি ড্র।

এ নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ইংল্যান্ডের দলগুলোর ওপর আধিপত্য ধরে রাখল বার্সেলোনা। আগের ১২ ম্যাচের মধ্যে ৯টি জেতা বার্সেলোনা হেরেছিল মাত্র একটিতে। বাকি দুই ম্যাচ ড্র।

‘এ’ গ্রুপে মোনাকোর মাঠে ২-০ গোলে জিতে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান নিশ্চিত করেছে জার্মানির বরুসিয়া ডর্টমুন্ড।

আরেক ম্যাচে ক্লাব ব্রুজের মাঠে গোলশূন্য ড্র করা আতলেতিকো মাদ্রিদের পয়েন্টও ১৩। তবে মুখোমুখি লড়াইয়ে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে গ্রুপ রানার্সআপ হয়েছে স্পেনের ক্লাবটি।    

ইন্টার খেলবে ইউরোপা লিগে।  

‘সি’ গ্রুপে রেড স্টার বেলগ্রেডকে ৪-১ গোলে হারিয়ে ১১ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে পিএসজি। আরেক ম্যাচে নাপোলিকে ১-০ গোলে হারিয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে রানার্সআপ হয়েছে লিভারপুল।

নাপোলির পয়েন্টও লিভারপুলের সমান ৯। মুখোমুখি লড়াইয়ে দুদলই নিজেদের মাঠে সমান ব্যবধানে জিতেছে। তাদের গোল ব্যবধানও সমান। কিন্তু সব মিলিয়ে কম গোল করায় তৃতীয় হয়েছে সেরি আর ক্লাবটি।

আগেই বিদায় নিশ্চিত হয়ে যাওয়া সার্বিয়ার ক্লাব রেড স্টার বেলগ্রেডের পয়েন্ট ৪।

‘ডি’ গ্রুপে শীর্ষস্থান আগেই নিশ্চিত করা পোর্তো শেষ ম্যাচে গালাতাসারাইয়ের মাঠে ৩-২ গোলে জিতেছে। অপরাজিত থেকে গ্রুপ পর্ব শেষ করা পর্তুগালের ক্লাবটির পয়েন্ট ১৬।

আরেক ম্যাচে রাশিয়ার ক্লাব লোকোমোতিভ মস্কোকে ১-০ গোলে হারিয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে শেষ ষোলোয় উঠেছে জার্মানির ক্লাব শালকে।

৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় হওয়া তুরস্কের ক্লাব গালাতাসারাই ইউরোপা লিগে জায়গা করে নিয়েছে। ৩ পয়েন্ট নিয়ে মুখোমুখি লড়াইয়ে পিছিয়ে গ্রুপের তলানিতে থেকে শেষ করেছে লোকোমোতিভ মস্কো।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক