ফ্রান্সকে হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নেদারল্যান্ডসের

শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বলের নিয়ন্ত্রণ, আক্রমণে ফ্রান্সের ওপর আধিপত্য করল নেদারল্যান্ডস। প্রথমার্ধে জর্জিনিয়ো ভিনালডাম দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে স্পট কিকে ব্যবধান বাড়ালেন মেমফিস ডিপাই। উয়েফা নেশন্স লিগে বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নিল ডাচরা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Nov 2018, 09:49 PM
Updated : 16 Nov 2018, 10:41 PM

নিজেদের মাঠে শুক্রবার রাতে ‘এ’ লিগে গ্রুপ-১-এর দ্বিতীয় লেগে ২-০ গোলে জেতে নেদারল্যান্ডস। প্রথম লেগে ফ্রান্সের মাঠে ২-১ গোলে হেরেছিল রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাই পেরুতে ব্যর্থ হওয়া দলটি।

দারুণ এ জয়ে ব্যর্থতার এক বৃত্তও ভাঙল নেদারল্যান্ডস। ২০০৮ সালের ইউরোতে ফ্রান্সকে ৪-১ গোলে হারানোর পর টানা শেষ পাঁচ ম্যাচ ফরাসিদের কাছে হেরেছিল তারা।

ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারত নেদারল্যান্ডস। কিন্তু ডান দিকের দুরূহ কোণ থেকে ডিপাই শট না নিয়ে বল বাড়ান ভিনালডামকে। কাছ থেকে এই মিডফিল্ডারের নেওয়া শট ফেরান উগো লরিস।

দশম মিনিটে প্রতিআক্রমণ থেকে সতীর্থের ক্রসে গ্রিজমানের হেড ঠেকিয়ে ফ্রান্সকে এগিয়ে যেতে দেননি গোলরক্ষক সিলেসেন। প্রথমার্ধে বলার মতো আর কোনো আক্রমণে শানাতে পারেনি বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

শুরু থেকে ফ্রান্সকে চাপে রাখা নেদারল্যান্ডস ৪৪তম মিনিটে কাঙিক্ষত গোলের দেখা পায়। বাঁ দিক থেকে আসা একটি ক্রস ফ্রান্সের স্তেফান জঞ্জি হেডে ফেরাতে গেলে বল চলে যায় রায়ান বাবেলের পায়ে। এই মিডফিল্ডারের শট লরিস ফেরালেও পুরোপুরি বিপদমুক্ত করতে পারেননি। আলগা বল পেয়ে বাঁ পায়ের শটে জাল খুঁজে নেন ২৮ বছর বয়সী মিডফিল্ডার ভিনালডাম।

৬৩তম মিনিটে ডালে ব্লিন্ডের বাড়ানো ক্রসে ডামফ্রিসের হেড ফেরানোর পর এই ডিফেন্ডারের ফিরতি শটও ফিরিয়ে ব্যবধান বাড়তে দেননি লরিস। দশ মিনিটে পর ডি-বক্সের একটু ওপর থেকে ডিপাইয়ের নেওয়া ফ্রি কিকও ফেরান গোলরক্ষক।

যোগ করা সময়ে ডি জংকে সিসোকো ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। ডিপাইয়ের শট ঠিকানা খুঁজে পেলে ফরাসিদের হার নিশ্চিত হয়ে যায়।

এরই সঙ্গে দিদিয়ের দেশমের দলের টানা ১৫ ম্যাচ অপরাজিত থাকার গর্বও চূর্ণ হলো।

৪ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে ফ্রান্স। ৩ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেদারল্যান্ডস।

আর ডাচদের এই জয়ে ৩ ম্যাচে ১ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে থাকা জার্মানির ‘বি’ লিগে অবনমন নিশ্চিত হয়ে গেছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক