অ্যাথেন্সকে সহজেই হারাল বায়ার্ন

দ্বিতীয়ার্ধে দুই মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করে চালকের আসনে বসার পর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি বায়ার্ন মিউনিখকে। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ম্যাচে এইকে অ্যাথেন্সের মাঠ থেকে জয় নিয়ে ফিরেছে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নরা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Oct 2018, 06:50 PM
Updated : 23 Oct 2018, 10:04 PM

মঙ্গলবার রাতে ‘ই’ গ্রুপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ২-০ গোলে জেতে বায়ার্ন।

এ নিয়ে ইউরোপের প্রতিযোগিতায় গ্রিসের দলের ওপর আধিপত্য ধরে রাখল বায়ার্ন। আগের নয় ম্যাচে সাতটি জিতেছিল তারা; বাকি দুই ম্যাচ ড্র।

টানা দুই ম্যাচ হেরে আসা অ্যাথেন্স নিজেদের মাঠে প্রথমার্ধে বায়ার্নকে দারুণভাবে আটকে রেখেছিল। রবের্ত লেভানদফস্কি-আরিয়েন রবেনরা বলের নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে থাকলেও প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে গিয়ে খেই হারানোয় কাঙ্ক্ষিত গোল পায়নি বুন্ডেসলিগার চ্যাম্পিয়নরা।

একাদশ মিনিটে জসুয়া কিমিচের বাড়ানো ক্রসে লেভানদফস্কির দুর্বল শট লক্ষ্য খুঁজে পায়নি। পরের মিনিটে গ্রানবির শট বেরিয়ে যায় দূরের পোস্ট দিয়ে।

প্রথমার্ধের সেরা সুযোগটি লেভানদফস্কি নষ্ট করেন ২৬তম মিনিটে। বাঁ দিক থেকে স্পেনের মিডফিল্ডার তিয়াগো আলকানতারার বাড়ানো বল দূরের পোস্ট দিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার আগে দরকারি টোকা দিতে পারেননি পোল্যান্ডের এই ফরোয়ার্ড।

আগের ম্যাচে আয়াক্সের সঙ্গে ড্র করা বায়ার্নের গোলের অপেক্ষা ফুরোয় ৬১তম মিনিটে। বাঁ দিক থেকে মাটস হুমেলসের বাড়ানো বলে রবেনের নেওয়া শট ফিরে আসার পর ফিরতি বলে দারুণ ভলিতে জাল খুঁজে নেন হাভিয়ের মার্তিনেস।

৬৩তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার পাশাপাশি গ্রুপ পর্বে দ্বিতীয় জয় অনেকটাই নিশ্চিত করে নেয় জার্মানির দলটি। রাফিনিয়ার আড়াআড়ি পাস গোলরক্ষক আটকাতে ব্যর্থ হলে পেয়ে যান লেভানদফস্কি। ফাঁকা পোস্টে সুযোগটা কাজে লাগাতে ভুল করেননি তিনি।

শেষ দিকে ব্যবধান বাড়াতে না পারলেও সহজ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বায়ার্ন।

তিন ম্যাচে দুটি জয় এক ড্রয়ে বায়ার্নের পয়েন্ট ৭।

গ্রুপের অন্য ম্যাচে বেনফিকাকে ১-০ গোলে হারানো আয়াক্সের পয়েন্টও ৭।

৩ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে পর্তুগালের ক্লাব বেনফিকা। টানা তিন হারে তলানিতে গ্রিসের দল এইকে অ্যাথেন্স।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক