তিন কোচের চোখে ‘ফেভারিট’ বাংলাদেশের মেয়েরা

এএফসি মহিলা অনূর্ধ্ব-১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে বাছাইয়ের চার প্রতিপক্ষকেই শক্তিশালী মানছেন বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। ফেভারিটের প্রশ্ন এড়িয়ে নিজেদের সেরাটা মাঠে মেলে ধরার দিকেই গুরুত্ব দিচ্ছেন তিনি। তবে প্রতিপক্ষ চার কোচের মধ্যে তিন জনের চোখে বাংলাদেশ ফেভারিট। সংযুক্ত আরব আমিরাতের কোচ কেবল ফেভারিটের প্রশ্নে এগিয়ে রাখলেন লেবাননকে।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Sept 2018, 12:26 PM
Updated : 14 Sept 2018, 12:26 PM

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে আগামী শনিবার শুরু হবে ‘এফ’ গ্রুপের বাছাই। সোমবার বাহরাইনের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

গতবারের চেয়ে এবার অবশ্য বাছাইয়ে পেরিয়ে মূল পর্বে যাওয়াটা কঠিন হয়ে গেছে। গতবার বাছাই পেরুলেই মিলেছিল সরাসরি মূল পর্বে খেলার টিকেট। এবার বাছাইয়ে ৬ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও সেরা দুই রানার্সআপ দল নিয়ে হবে দ্বিতীয় রাউন্ড। সেখানে আটটি দল খেলবে দুই গ্রুপে। দুই গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ উঠবে মূল পর্বে। উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া এবং জাপান-গত আসরের সেরা তিনে থাকায় সরাসরি খেলা নিশ্চিত করেছে।

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে স্বাগতিকদের নিয়ে নিজেদের মনোভাব জানান চার কোচ। লেবানন কোচ হ্যাগোপ ডেমিরজিয়ান বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের ‘সক্ষমতা’ বেশি বলে মনে করেন। নিজ দলের চাওয়ার প্রশ্নে জানালেন উন্নতির কথা।

“আমরা দুই মাস আগে থেকে এই টুর্নামেন্টের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। স্থানীয় অনূর্ধ্ব-১৯ ও সিনিয়র দলের সঙ্গে তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। একটা জিতেছি, দুইটা হেরেছি। আমাদের দেশে মেয়েদের ফুটবলের উন্নতি হচ্ছে। ফল নিয়ে ভাবছি না। উন্নতিই আমাদের মূল লক্ষ্য।”

“বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের সক্ষমতা তুলনামূলকভাবে বেশি। তবে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব।”

ভিয়েতনাম কোচ এনগুইয়েন থি মাই লানও জানালেন দুই মাসের প্রস্তুতি নিয়ে আসার কথা। বাংলাদেশ ও লেবাননকে ফেভারিট মেনে বাছাই পেরুনোর লক্ষ্য তার।

“বাছাইয়ের প্রথম পর্ব পেরিয়ে দ্বিতীয় পর্বে যাওয়ার লক্ষ্য আমাদের। প্রতিপক্ষদের কিছু ম্যাচ আমরা দেখেছি। কেউ সেরা দল নয় কিন্তু আমি মনে করি বাংলাদেশ ও লেবানন ফেভারিট; বিশেষ করে বাংলাদেশ।”

বাহরাইন কোচ খালেদ হাসানের চোখে স্বাগতিক বাংলাদেশ ‘ভালো এবং শক্তিশালী’।

“গত ওয়েস্ট-এশিয়া কাপে আমরা ছয় দলের মধ্যে চতুর্থ হয়েছিলাম। এবার আমরা এই প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে যেতে চাই। আমার দৃষ্টিতে বাংলাদেশ ভালো এবং শক্তিশালী দল।

গত দুই বাছাইয়ে বাংলাদেশের কাছে হেরেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। ২০১৪ সালের বাছাইয়ে ৬-০ এবং ২০১৬ সালে ৪-০ গোলে হেরেছিল তারা। দলটির কোচ আল তাহিরি সবার চেয়ে এগিয়ে রাখলেন লেবাননকে।

“দুই মাসের প্রস্তুতি নিয়ে আমরা এসেছি। আমাদের দলটা নতুন এবং উন্নতির পর্যায়ে আছে। দলের জন্য এটা নতুন অভিজ্ঞতা হবে এবং আমরা জানতে পারব এশিয়াতে আমরা কোন অবস্থানে আছি। সব দলই সমান, লেবানন কিছুটা এগিয়ে। তবে আমরাও চ্যাম্পিয়ন হতে চাই।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক