‘কাভানিকে ছাড়া মানিয়ে নিতে পারবে উরুগুয়ে’

ফ্রান্সের বিপক্ষে কোয়ার্টার-ফাইনালে এদিনসন কাভানিকে পাওয়া নিয়ে শঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন উরুগুয়ের ফরোয়ার্ড লুইস সুয়ারেস। তবে তিনি আত্মবিশ্বাসী যে কাভানিকে ছাড়াই মানিয়ে নিতে পারবে তার দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 July 2018, 04:31 PM
Updated : 3 July 2018, 04:31 PM

শেষ ষোলোয় পর্তুগালের বিপক্ষে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে পড়েছিলেন কাভানি। দারুণ ফর্মে থাকা পিএসজির এই ফরোয়ার্ড মঙ্গলবার জিম করলেও দলের সঙ্গে অনুশীলনে নামেননি।

অনুশীলনের সময় ডান পায়ে অস্বস্তি নিয়ে থমকে যান সুয়ারেস নিজেও। খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে সাইডলাইনে যেতে হয় তাকে। অবশ্য সংবাদ সম্মেলনে তার মধ্যে কোনো অস্বস্তি দেখা যায়নি।

ফ্রান্সের বিপক্ষে কাভানির খেলার সম্ভাবনা নিয়ে এখনও নিশ্চিত নন সুয়ারেস। তবে তার জন্য শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে চান এই ফরোয়ার্ড।

“আমি নিজেকে কাভানির অপেক্ষায় থাকা ত্রিশ লাখ উরুগুয়াইনের ভেতরে রাখব।”

“আমি জানি এটা জটিল। কারণ চোটটা সহজ নয় এবং সেরে ওঠার জন্য অল্প কয়েকটা দিনই আছে। কিন্তু আমি জানি তার আকাঙ্ক্ষা, মনোভাব এবং অঙ্গীকারের জন্য সে সেখানে থাকবেই, যদিও এটা তার ওপরে খুব বেশি নির্ভর করে না।”

শেষ ষোলোয় পর্তুগালের বিপক্ষে দলের ২-১ ব্যবধানের জয়ে দুটি গোলই করেন কাভানি। দলকে বিশ্বকাপে তুলতে বাছাই পর্বে ১৫ ম্যাচে করেন ১০ গোল।

২০১৫ সালে বাছাই পর্বের দুটি ম্যাচে বলিভিয়া ও কলম্বিয়ার বিপক্ষে কাভানি ও সুয়ারেস দুজনেই খেলতে পারেননি। কোনো গোল হজম না করে সহজেই ম্যাচ দুটিতে জয় পায় অস্কার তাবারেসের দল।

ঐ দুই ম্যাচের কথা উল্লেখ করে সুয়ারেস মনে করিয়ে দিচ্ছেন, শুধু দুই তারকা ফরোয়ার্ডের ওপর নির্ভরশীল নয় দুই বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

“সে অপরিহার্য, কারণ সে যেমন খেলোয়াড়, জাতীয় দলের জন্য তার খেলা প্রতিটি ম্যাচে সে যা দেখিয়েছে, পর্তুগালের বিপক্ষে সে যে গোল দুটি করেছে, তার টিম ওয়ার্ক, … সবই গুরুত্বপূর্ণ।”

“এটা একটা বিশ্বকাপ এবং কাভানির ফর্ম খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু দলে আরও খেলোয়াড় আছে যারা একইভাবে এটা করতে পারে এবং এমনকি আমরা এর চেয়েও ভালো আশা করি। বিষয়গুলো শুধু একজন খেলোয়াড়ের ওপর নির্ভর করে না। উরুগুয়ে দেখিয়েছে যে আমরা মাঠে দলগত কাজে নির্ভর করি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক