হিগুয়াইনের জোড়ায় ফাইনালে এক পা ইউভেন্তুসের

গনসালো হিগুয়াইন-দানি আলভেসের দারুণ নৈপুণ্যে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালের পথে অনেকটা এগিয়ে গেছে ইউভেন্তুস। আর্জেন্টিনার তারকা স্ট্রাইকারের জোড়া গোলে সেমি-ফাইনালের প্রথম লেগে মোনাকোকে ২-০ গোলে হারিয়েছে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 May 2017, 08:43 PM
Updated : 4 May 2017, 10:37 AM

বুধবার রাতে হিগুয়াইনের দুই অর্ধের দুটি গোলেই গুরত্বপূর্ণ অবদান রাখেন ব্রাজিলের ডিফেন্ডার আলভেস। মূল্যবান দুটি অ্যাওয়ে গোলে জয়ের পাশাপাশি আরও একবার নিজেদের জাল অক্ষত রেখেই ফিরলো আসরে এখন পর্যন্ত মাত্র দুটি গোল খাওয়া ইউভেন্তুস।  

মোনাকোর মাঠে শুরুর চিত্র অবশ্য কিছুটা ভিন্ন ছিল। বার্সেলোনার বিশ্বসেরা আক্রমণভাগ যেখানে ইউভেন্তুসের জমাট রক্ষণের বিপক্ষে তেমন সুবিধা করতে পারেনি সেখানে কিয়েল্লিনি-বোনুচ্চিদের ফাঁকি দিয়ে বারবার ভিতরে ঢুকে পড়ছিল তরুণ ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপে।

ত্রয়োদশ মিনিটে অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ঢুকে যাওয়া এমবাপে ছয় গজ বক্সের সামনে ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন; কিন্তু ঠিকমতো হেড করতে পারেননি। তিন মিনিট পর দুরূহ কোণ থেকে তার শট ঠেকিয়ে দলকে বাঁচান গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফ্ফন।

২৫তম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো ইউভেন্তুস; কিন্তু ছয় গজ বক্সের ডান দিক থেকে হিগুয়াইনের শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এর চার মিনিট পরেই দারুণ এক পাল্টা আক্রমণে এগিয়ে যায় দলটি। ডান দিক থেকে আলভেসের ব্যাকহিল করে বাড়ানো বল প্রথম শটেই জালে জড়ান ছন্দে থাকা হিগুয়াইন।

দ্বিতীয়ার্ধের দশম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারতো; কিন্তু ইতালিয়ান মিডফিল্ডার ক্লাওদিও মার্চিসিওর কোনাকুনি শট ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক দানিয়েল সুবাসিচ।

তিন মিনিট পরেই স্কোরলাইন ২-০ করেন হিগুয়াইন। ডান দিক থেকে আলভেসের দারুণ ক্রস ছয় গজ বক্সের মুখে পেয়ে টোকায় জালে ঠেলে দেন চলতি মৌসুমের শুরুতে নাপোলি থেকে আসা এই তারকা।

প্রতিযোগিতার এবারের আসরে আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারের এটা পঞ্চম গোল, সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৩১টি।

শেষ পাঁচ মিনিট ভালো দুটি আক্রমণ করেছিল মোনাকো; কিন্তু ব্যবধান কমাতে পারেনি। প্রথমবার জালে বল পাঠাতে গোলমুখ থেকে একটা টোকার দরকার ছিল, পারেননি রাদামেল ফালকাও। দ্বিতীয়বার ফরাসি ফরোয়ার্ড ভালেহের প্রচেষ্টা কর্নারের বিনিময়ে ঠেকিয়ে দেন বুফ্ফন।

আগামী মঙ্গলবার ইউভেন্তুসের মাঠে হবে ফিরতি লেগ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক