শিরিনই দ্রুততম মানবী

ছেলেদের মতো মেয়েদের ১০০ মিটার স্প্রিন্টের লড়াটাই জমেনি। দাপটের সঙ্গে এবারও দ্রুততম মানবীর মুকুট ধরে রেখেছেন শিরিন আক্তার।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Dec 2016, 12:35 PM
Updated : 23 Dec 2016, 12:35 PM

এ নিয়ে টানা তৃতীয় বারের মতো জাতীয় অ্যাথলেটিকসে দ্রুততম মানবী হলেন বাংলাদেশনৌবাহিনীর এই অ্যাথলেট।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের ট্র্যাকে শুক্রবার ১২ দশমিক ০১ সেকেন্ড সময় নিয়েমর্যাদার ১০০ মিটার স্প্রিন্ট শেষ করেন শিরিন। বাংলাদেশ নৌবাহিনী দলে তারই সতীর্থ সোহাগীআক্তার ১২ দশমিক ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে হয়েছেন দ্বিতীয়।

বরাবরের মতো হ্যান্ড টাইমিংয়ে হওয়া জাতীয় অ্যাথলেটিকসের এবারের প্রতিযোগিতার ১০০মিটারে তৃতীয় হয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বর্ষা খাতুন (১২ দশমিক ৩৭ সেকেন্ড)।

আগের দিন পুরুষ বিভাগের ১০০ মিটারে দারুণ লড়াই করে মুকুট ধরে রাখেন মেজবাহ আহমেদ।১০ দশমিক ৬৩ সেকেন্ড মেজবাহ পেছনে ফেলেন এমএ রউফকে (১০ দশমিক ৭০ সেকেন্ড)।

গত এসএ গেমসে ১০০ মিটারের হিটে ১১ দশমিক ৯৯ সেকেন্ড শিরিনের নিজের সেরা। রিও দেজেনেইরো অলিম্পিকে প্রিলিমিনারি হিটে ১২ দশমিক ৯৯ সেকেন্ড সময় নিয়েছিলেন তিনি।

নিজের সেরা টাইমিং ছাপিয়ে যেতে না পারলেও সামার মিট আর জাতীয় পর্যায় মিলিয়ে চারবারদ্রুততম মানবী হওয়া শিরিন জানালেন এবার মুকুট ধরে রাখাটা তার জন্য বিশেষ কিছু।

“বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা চলছিল, যার ফলে আমার পরীক্ষার ফাঁকে যাতায়াত করে প্রস্তুতিনিতে হয়েছে। খুবই কষ্ট হয়েছে। তাই এবারেরটা আমার জন্য একটু বেশিই স্পেশাল। চার বারেরমধ্যে এবারের মতো কষ্ট কোনো বার হয়নি।”

গত এসএ গেমসে হতাশ করা শিরিন প্রতিশ্রুতি দিলেন পরের বার পদক এনে দেওয়ার।

“এসএ গেমসে আশা ছিল, পারিনি। আগামীতে একটি পদকের আশা করছি। অলিম্পিক গেমসের মতোবড় আসরের অভিজ্ঞতাগুলো কাজে লাগাতে চাই আগামী এসএ গেমসে। এর জন্য দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ,উন্নত ট্রেনিং এবং নিউট্রিশন নিশ্চিত করা প্রয়োজন।”

জাতীয় অ্যাথলেটিকসের দ্বিতীয় দিনে ছেলেদের ২০০ মিটার স্প্রিন্টে ২১ দশমিক ৫১ সেকেন্ডসময় নিয়ে সেরা হয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শরিফুল ইসলাম। গতবারের চেয়ে (২১ দশমিক ৭৮সেকেন্ড) এবার শরিফুলের টাইমিংয়ে উন্নতি হয়েছে।

মেয়েদের ২০০ মিটার স্প্রিন্টে সেরা হয়েছেন সোহাগী। ২৪ দশমিক ৪৬ সেকেন্ড সময় নিয়েদৌড় শেষ করেছেন নৌবাহিনীর এই অ্যাথলেট। সেনাবাহিনীর সুমিতা ঘোষ ২৫ দশমিক ৩৭ সেকেন্ডসময় নিয়ে হয়েছেন দ্বিতীয়। মেয়েদের ৮০০ মিটার দৌড়ে সুমি আক্তার (২ মিনিট ২৬ দশমিক ৮০সেকেন্ড) সেরা হয়েছেন।

৫ হাজার মিটার দৌড়ে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের শাকিল মিয়া (১৬ মিনিট ৫ দশমিক ১০সেকেন্ড), ম্যারাথনে ফিরোজ খান (২ ঘণ্টা ৩৩ দশমিক ৫৫ সেকেন্ড), ৪০০ মিটার হার্ডলসেসোহেল রানা (৫৪ দশমিক ৪৯ সেকেন্ড), মেয়েদের হাই জাম্পে রত্না আক্তার (১ দশমিক ৬৫ মিটার),ট্রিপল জাম্পে আল আমিন (১৪ দশমিক ৪০ মিটার), ও ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে শেখ আশরাফুজ্জামান(৪৮ দশমিক ৬২ সেকেন্ড) সেরা হয়েছেন।

৬৩ দশমিক ২৭ মিটার দূরে বর্ষা নিক্ষেপ করে সেরা হয়েছেন মোহাম্মদ রাসেদুজ্জামান।মেয়েদের লং জাম্পে প্রথম হয়েছেন আইরিন আক্তার (৫ দশমিক ৩৪ মিটার)। ছেলেদের শটপুটে ইমতিয়াজহোসেন (১৩ দশমিক ৭৪ মিটার) প্রথম হয়েছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক