জাতীয় সাঁতারে রোমানা-নাজমা-জুয়েলের দাপট

মাহফুজা খাতুন শিলা, মাহফিজুর রহমান সাগরের মতো তারকাদের পেছনে ফেলে জাতীয় সাঁতারে এবার সুইমিংপুলে ঝড় তুলেছেন জুয়েল আহম্মেদ, রোমানা আক্তার ও নাজমা খাতুন।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Nov 2016, 03:59 PM
Updated : 29 Nov 2016, 03:59 PM

মঙ্গলবার প্রতিযোগিতার শেষ দিনে সাঁতারে হয়েছে ৮টি রেকর্ড। ডাইভিংয়ে আরও তিনটি। সব মিলিয়ে ব্যক্তিগত ইভেন্টের রেকর্ডে অবশ্য ছেলেদের পেছনে ফেলেছে মেয়েরা। মোট ১৫টি রেকর্ডের তিনটি ছেলেরা, বাকি ১২টি মেয়েরা গড়েছেন।

সবচেয়ে বেশি রেকর্ড (৫টি) রোমানার; পাঁচটি সোনা ও একটি রুপা জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এই সাঁতারু। রোমানার চেয়ে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর নাজমা বেশি সোনা (৬টি) জিতলেও রেকর্ড গড়েছেন চারটি। সোনা, রুপা ও ব্রোঞ্জ মিলিয়ে ছয় পদক জেতার পথে সেনাবাহিনীর নাঈমা আক্তার তিনটি রেকর্ড গড়েন।

ছেলেদের ব্যক্তিগত ইভেন্টে বেশি রেকর্ড (২টি) সাগরের। তবে সোনা জয়ের হিসেবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জুয়েলের পেছনে আছেন তিনি। জুয়েল একটি রেকর্ড গড়লেও চারটি সোনা ও একটি ব্রোঞ্জ জিতেছেন। সাগর পেয়েছেন তিনটি সোনা ও একটি রুপা।

গত এসএ গেমসে বাংলাদেশকে ১০০ ও ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোক থেকে সোনা এনে দেওয়া তারকা মাহফুজা এবার শুধু ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকের সোনা জিতেছেন।

দলীয় পদকে আধিপত্য করেছে নৌবাহিনী। ২৪টি সোনা, ১৬টি রুপা ও ১০টি ব্রোঞ্জ মিলিয়ে ৫০টি পদক জিতেছে তারা। ১৪টি সোনা, ১৯টি রুপা ও ১০টি ব্রোঞ্চসহ ৪৭টি পদক নিয়ে দ্বিতীয় সেনাবাহিনী। এই দুই দলের বাইরে সোনা জেতা একমাত্র দল বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিকেএসপি; দুটি সোনা, পাঁচটি রুপা ও ১০টি ব্রোঞ্জ পেয়েছে তারা।

মঙ্গলবার ২০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে ২ মিনিট ৫১ দশমিক ৯০ সেকেন্ড সময় নিয়ে নতুন রেকর্ড গড়েছেন রোমানা; আগের রেকর্ডটি ২০১০ সালে গড়েছিলেন ডলি আক্তার (২ মিনিট ৫৬ দশমিক ৫৭ সেকেন্ড)। ২০০ মিটার বাটারফ্লাইয়েও রেকর্ডও নিজের করে নিয়েছেন রোমানা। ২০১৪ সালে গড়া সোনিয়া আক্তার টুম্পার (৪১ দশমিক ৪৯ সেকেন্ড) রেকর্ড তিনি ভেঙেছেন ৪১ দশমিক ০৩ সেকেন্ড সময় নিয়ে।

৩৩ দশমিক ৭৪ সেকেন্ডে সাঁতার শেষ করে ৫০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে রেকর্ড গড়েছেন নাঈমা আক্তার। ৩৪ দশমিক ৯২ সেকেন্ড সময় নিয়ে আগের রেকর্ডটি গড়েছিলেন ডলি।

৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে ২০১৪ সালে গড়া নিজের রেকর্ডই ভেঙেছেন সাগর। ২৪ দশমিক ০২ সেকেন্ড থেকে নিজের টাইমিং ২৩ দশমিক ৯৮ সেকেন্ডে উন্নীত করেছেন নৌবাহিনীর এই সাঁতারু।

মেয়েদের ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে রেকর্ড গড়েছেন নাজমা। দুই বছর আগে নিজের গড়া ২৯ দশমিক ৮২ সেকেন্ড টাইমিং এবার ২৯ দশমিক ১১ সেকেন্ড উন্নীত করেছেন তিনি।

মেয়েদের ৮০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে ২০১০ সালে সবুরা খাতুনের গড়া (১০ মিনিট ৪৮ দশমিক ৭৪ সেকেন্ড) রেকর্ড এবার নাজমা ভেঙেছেন ১০ মিনিট ৩৯ দশমিক ০৭ সেকেন্ডে সাঁতার শেষ করে।

মনিরুল-পলাশ-নাহিদ-সাগর মিলে ৪ মিনিট ৩ দশমিক ৭৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে রেকর্ড গড়ার সঙ্গে নৌবাহিনীকে ৪*১০০ মিটার মেডলি রিলের সোনা এনে দিয়েছেন। আগের রেকর্ডটি ছিল ৪ মিনিট ৪ দশমিক ৩০ সেকেন্ডের। এই ইভেন্টে মেয়েদের বিভাগে রেকর্ড গড়ে নৌবাহিনীকে সোনা এনে দিয়েছেন নাজমা, টুম্পা, মাহফুজা ও লাকী। ৪ মিনিট ৫৪ দশমিক ২০ সেকেন্ড সময় নেন তারা। আগের সেরা ছিল ৫ মিনিট শূন্য দশমিক ৫০ সেকেন্ড।

২০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোক পলাশ চৌধুরী (২ মিনিট ২৭ দশমিক ৪৪ সেকেন্ড), ২০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে মাহমুদুন্নবী নাহিদ (২ মিনিট ১৩ দশমিক ০৭ সেকেন্ড), ১ হাজার ৫০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে ফয়সাল আহমেদ (১৭ মিনিট ৪১ দশমিক ৪৬ সেকেন্ড) সোনা জিতেছেন।

ডাইভিংয়ের তিনটি ইভেন্টে রেকর্ড গড়ে সোনা জিতেছেন নৌবাহিনীর সাদি মোহাম্মদ মহসিন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক