অভিষেকেই বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন দেং ওয়েই

অলিম্পিক অভিষেকেই দ্যুতি ছড়ালেন চীনের দেং ওয়েই। রিও গেমসের ভারোত্তোলনে মেয়েদের ৬৩ কেজি ওজনশ্রেণিতে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে সোনা জিতেছেন তিনি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 August 2016, 12:26 AM
Updated : 10 August 2016, 12:26 AM

আগের রেকর্ডধারীতাইওয়ানের লিন জু-চাই ইভেন্ট শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে প্রতিযোগিতা থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন।আন্তর্জাতিক ভারোত্তোলন ফেডারেশন লিনের সরে দাঁড়ানোর বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি। তবেএকটি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, ডোপ টেস্টে উতরাতে পারেননি তাইওয়ানের এই অ্যাথলেট।

২০১৪ সালে এশিয়ানশিরোপা জেতার পথে ২৬১ কেজি ওজন তুলে বিশ্ব রেকর্ড গড়া লিনকে মঙ্গলবারের এ প্রতিযোগিতাথেকে সরিয়ে নেয় তাইওয়ানের অলিম্পিক কমিটি। পরে ২৬২ কেজি ওজন তুলে রেকর্ড গড়েন দেং ওয়েই।

বিশ্ব রেকর্ডগড়ার পথে দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় ক্লিন অ্যান্ড জার্কে নিজেরই গড়া আগের বিশ্ব রেকর্ডেরচেয়ে ১ কেজি বেশি মোট ১৪৭ কেজি ওজন তোলেন দেং ওয়েই।

দেংয়ের চেয়ে১৪ কেজি ওজন কম তুলে রূপা জেতেন উত্তর কোরিয়ার চোয়ে হিও সিম।

কাজাখস্তানেরমেয়ে ২৩ বছর বয়সী কারিনা গোরিচেভা ব্রোঞ্জ জেতেন।

চীনের নতুন শি ঝিয়ং

২০০৪ সালে এথেন্সঅলিম্পিকে ৬২ কেজি ওজনশ্রেলিতে সোনা জিতে চীনের নায়ক বনে গিয়েছিলেন শি ঝিয়ং। তার নামেইনাম রাখা ওই সময়ের কিশোর শি ঝিয়ং নামের প্রতি সুবিচার করে রিও গেমসে জিতে নিয়েছেন পুরুষ৬৯ কেজি ওজনশ্রেণি সোনা।

নতুন শি মঙ্গলবারমোট ৩৫২ কেজি ওজন তুলে চ্যাম্পিয়ন হন।

তার চেয়ে মাত্রএক কেজি ওজন কম তুলে রুপা জিতেছেন তুরস্কের দানিয়ার ইসমাইলোভ। আর ৩৩৯ কেজি ওজন তুলেব্রোঞ্জ পদক জেতেন ইজ্জত আর্তিকোভ। ভারোত্তোলনে কাজাখস্তানের এটাই প্রথম অলিম্পিক পদক।

২০০৪ সালে জাতীয়নায়ক বনে যাওয়া শি ঝিয়ংয়ের নামে নামকরন নিয়ে নতুন শি বলেন, “অনুশীলনের জন্য যখন আমিপরিবার ছেড়েছিলাম তখন আমি তরুণ ছিলাম এবং আমার কোচ আমাকে নতুন নাম দেন। ওই সময়ে ২০০৪অলিম্পিকের বিষয়ে আমি জানতাম না।”

“বেড়ে ওঠারসঙ্গে সঙ্গে শি ঝিয়ংয়ের বিষয়ে আমি সব জানলাম এবং আমি গর্বিত এটা বলতে যে, কয়েক বছরআগে আমাদের দেখা হয়েছিল।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক