‘আই অ্যাম দ্য গ্রেটেস্ট’

  • বক্সিংয়ে অসাধারণ নৈপুণ্য প্রদর্শনের পাশাপাশি বুদ্ধিদীপ্ত বক্রোক্তি, শৌর্যের বড়াই ও আক্রমণাত্মক বক্তব্যে অর্ধ শতকেরও বেশি সময় ধরে বিশ্বজুড়ে আলোচনায় ছিলেন মুহাম্মাদ আলি।
‘সর্বকালের সেরা’ এই মুষ্টিযোদ্ধার বিভিন্ন সময়ের এসব বক্তব্য তুলে এনেছে বিবিসি। বক্সিং থেকে রাজনীতি-ধর্ম বিষয়গুলো নিয়ে আলির ‘সেরা’ বক্তব্যগুলোর দিকে চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক।

    বক্সিংয়ে অসাধারণ নৈপুণ্য প্রদর্শনের পাশাপাশি বুদ্ধিদীপ্ত বক্রোক্তি, শৌর্যের বড়াই ও আক্রমণাত্মক বক্তব্যে অর্ধ শতকেরও বেশি সময় ধরে বিশ্বজুড়ে আলোচনায় ছিলেন মুহাম্মাদ আলি। ‘সর্বকালের সেরা’ এই মুষ্টিযোদ্ধার বিভিন্ন সময়ের এসব বক্তব্য তুলে এনেছে বিবিসি। বক্সিং থেকে রাজনীতি-ধর্ম বিষয়গুলো নিয়ে আলির ‘সেরা’ বক্তব্যগুলোর দিকে চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক।

  • “আমেরিকাকে সেরা বানানোই আমরা লক্ষ্য, তাই আমি রাশিয়ান ও পোলিশদের হারাই। এবং যুক্তরাষ্ট্রের জন্য স্বর্ণপদক জয় করি। গ্রিকরা বলে, তুমি প্রাচীন ক্যাসিয়াসের চেয়েও ভালো,” ১৯৬০ সালে রোমে অলিম্পিক লাইট-হেভিওয়েট স্বর্ণপদক জিতে বলেন তিনি।

    “আমেরিকাকে সেরা বানানোই আমরা লক্ষ্য, তাই আমি রাশিয়ান ও পোলিশদের হারাই। এবং যুক্তরাষ্ট্রের জন্য স্বর্ণপদক জয় করি। গ্রিকরা বলে, তুমি প্রাচীন ক্যাসিয়াসের চেয়েও ভালো,” ১৯৬০ সালে রোমে অলিম্পিক লাইট-হেভিওয়েট স্বর্ণপদক জিতে বলেন তিনি।

  • ১৯৬০ অলিম্পিক গেমস চলাকালে সে সময়ের বিশ্ব হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন ফ্লয়েড প্যাটারসনকে নিয়ে আলি বলেন, “হেই ফ্লয়েড-আমি তোমাকে দেখেছি! আমি তোমাকে হারাতে চলেছি! ভুলে যেও না, আমিই সেরা (আই অ্যাম দ্য গ্রেটেস্ট)!”

    ১৯৬০ অলিম্পিক গেমস চলাকালে সে সময়ের বিশ্ব হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন ফ্লয়েড প্যাটারসনকে নিয়ে আলি বলেন, “হেই ফ্লয়েড-আমি তোমাকে দেখেছি! আমি তোমাকে হারাতে চলেছি! ভুলে যেও না, আমিই সেরা (আই অ্যাম দ্য গ্রেটেস্ট)!”

  • ১৯৬৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন সানি লিসটনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামার আগে তিনি বলেন, “সানি লিসটন কিছুই না। লোকটি কথা বলতে পারে না। লোকটি লড়াই করতে জানে না। লোকটির কথা বলার শিক্ষা দরকার। লোকটির বক্সিংয়ের প্রশিক্ষণ দরকার। তাই সে আমার সঙ্গে লড়তে যাচ্ছে, তার পরাজয়ের শিক্ষা দরকার।”
“আমি বিশ্বকে নাড়িয়ে দিয়েছি! আমি বিশ্বকে নাড়িয়ে দিয়েছি!,” লিসটনকে হারিয়ে বলেন তিনি।

    ১৯৬৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন সানি লিসটনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামার আগে তিনি বলেন, “সানি লিসটন কিছুই না। লোকটি কথা বলতে পারে না। লোকটি লড়াই করতে জানে না। লোকটির কথা বলার শিক্ষা দরকার। লোকটির বক্সিংয়ের প্রশিক্ষণ দরকার। তাই সে আমার সঙ্গে লড়তে যাচ্ছে, তার পরাজয়ের শিক্ষা দরকার।” “আমি বিশ্বকে নাড়িয়ে দিয়েছি! আমি বিশ্বকে নাড়িয়ে দিয়েছি!,” লিসটনকে হারিয়ে বলেন তিনি।

  • ১৯৬৫ সালে ফ্লয়েড প্যাটারসনকে হারানোর আগে আলি বলেন, “আমি তাকে এমনভাবে আঘাত করব যে, তার হ্যাট রাখার জন্য একটা হাতা লাগবে।”

    ১৯৬৫ সালে ফ্লয়েড প্যাটারসনকে হারানোর আগে আলি বলেন, “আমি তাকে এমনভাবে আঘাত করব যে, তার হ্যাট রাখার জন্য একটা হাতা লাগবে।”

  • ১৯৬৬ সালে ব্রিটেনের ব্রায়ানকে হারানোর পর তিনি বলেন, “সে দেড় রাউন্ড ভালো লড়াই করেছে সেজন্য আপনাদের তাকে ক্রেডিট দিতে হবে।”
“আমি বাস্টারকে তাই করতে যাচ্ছি যা ইন্ডিয়ানরা কাস্টারকে (নেটিভ আমেরিকানদের হাতে নিহত সেনা কর্মকর্তা) করেছিল,” ১৯৭১ সালে বাস্টার ম্যাথিসকে হারানোর আগে বলেন তিনি।

    ১৯৬৬ সালে ব্রিটেনের ব্রায়ানকে হারানোর পর তিনি বলেন, “সে দেড় রাউন্ড ভালো লড়াই করেছে সেজন্য আপনাদের তাকে ক্রেডিট দিতে হবে।” “আমি বাস্টারকে তাই করতে যাচ্ছি যা ইন্ডিয়ানরা কাস্টারকে (নেটিভ আমেরিকানদের হাতে নিহত সেনা কর্মকর্তা) করেছিল,” ১৯৭১ সালে বাস্টার ম্যাথিসকে হারানোর আগে বলেন তিনি।

  • ১৯৭৩ সালে কেন নরটনের কাছে পরাজয়ের পর মুহাম্মাদ আলী বলেন, “আমি কখনও হারার কথা ভাবিনি, কিন্তু এবার তাই হল।... আমাদের সবাইকে জীবনে পরাজয়ের স্বাদ নিতে হবে।”

    ১৯৭৩ সালে কেন নরটনের কাছে পরাজয়ের পর মুহাম্মাদ আলী বলেন, “আমি কখনও হারার কথা ভাবিনি, কিন্তু এবার তাই হল।... আমাদের সবাইকে জীবনে পরাজয়ের স্বাদ নিতে হবে।”

  • কৃষ্ণাঙ্গ আলি ছিলেন রাজনীতি সচেতন। শ্বেতাঙ্গদের নিপীড়নের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন তিনি।
আলি বলেন, “বক্সিং এমন একটা বিষয় যেখানে অনেক শ্বেতাঙ্গ দুইজন কৃষ্ণাঙ্গকে একে অপরকে মারতে দেখে।
“ক্যাসিয়াস ক্লে একটি দাস নাম। আমি এটা পছন্দ করিনি এবং আমি এটা চাই না। আমি মুহাম্মদ আলি, একটি স্বাধীন নাম, এবং আমি চাই আমার সঙ্গে ও আমাকে নিয়ে কথা বলার সময় মানুষ এটা ব্যবহার করুক।”

    কৃষ্ণাঙ্গ আলি ছিলেন রাজনীতি সচেতন। শ্বেতাঙ্গদের নিপীড়নের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন তিনি। আলি বলেন, “বক্সিং এমন একটা বিষয় যেখানে অনেক শ্বেতাঙ্গ দুইজন কৃষ্ণাঙ্গকে একে অপরকে মারতে দেখে। “ক্যাসিয়াস ক্লে একটি দাস নাম। আমি এটা পছন্দ করিনি এবং আমি এটা চাই না। আমি মুহাম্মদ আলি, একটি স্বাধীন নাম, এবং আমি চাই আমার সঙ্গে ও আমাকে নিয়ে কথা বলার সময় মানুষ এটা ব্যবহার করুক।”

  • ১৯৭০ সালে জেরি কুয়ারির সঙ্গে লড়াইয়ের আগে আলি বলেন, “কারও আমাকে বলতে হয়নি যে, এটা একটা গুরুতর বিষয়। আমি শুধু একজনের সঙ্গে লড়ছি না। আমি অনেক মানুষের সঙ্গে লড়ছি।...এখানে মাত্র একজন আছে যাকে তারা পরাজিত করতে পারেনি, শাসন করতে পারেনি। আমার লক্ষ্য তিন কোটি কালো মানুষের স্বাধীনতা।”

    ১৯৭০ সালে জেরি কুয়ারির সঙ্গে লড়াইয়ের আগে আলি বলেন, “কারও আমাকে বলতে হয়নি যে, এটা একটা গুরুতর বিষয়। আমি শুধু একজনের সঙ্গে লড়ছি না। আমি অনেক মানুষের সঙ্গে লড়ছি।...এখানে মাত্র একজন আছে যাকে তারা পরাজিত করতে পারেনি, শাসন করতে পারেনি। আমার লক্ষ্য তিন কোটি কালো মানুষের স্বাধীনতা।”

  • ২০০১ সালে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে হামলার পর মুহাম্মাদ আলি বলেন, “আমাকে সত্যিকারে যা কষ্ট দিচ্ছে তা হলো ইসলামের নাম জড়িত রয়েছে এবং মুসলিমরা জড়িত, তারা সমস্যা তৈরি করছে এবং ঘৃণা ও সহিংসতা শুরু করেছে। ইসলাম খুনিদের ধর্ম নয়, ইসলাম মানে শান্তি।”

    ২০০১ সালে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে হামলার পর মুহাম্মাদ আলি বলেন, “আমাকে সত্যিকারে যা কষ্ট দিচ্ছে তা হলো ইসলামের নাম জড়িত রয়েছে এবং মুসলিমরা জড়িত, তারা সমস্যা তৈরি করছে এবং ঘৃণা ও সহিংসতা শুরু করেছে। ইসলাম খুনিদের ধর্ম নয়, ইসলাম মানে শান্তি।”

  • মার্কিন সেনাবাহিনীতে যোগদানে আপত্তি জানিয়ে তিনি বলেন, “তারা কেন আমাকে একটি ইউনিফর্ম পরে বাড়ি থেকে ১০ হাজার মাইল দূরে গিয়ে ভিয়েতনামের মানুষের ওপর বোমা ও গুলি ফেলতে বলছে, যেখানে লুয়াভিলের কথিত নেগ্রোদের সঙ্গে কুকুরের মতো আচরণ করা হয় এবং সাধারণ মানবাধিকার বঞ্চিত হয়?”
“শুধু শ্বেতাঙ্গ দাস মালিকদের আধিপত্য বজায় রাখতে আরেকটি জাতিকে হত্যা ও পোড়াতে সহয়োগিতার জন্য আমি বাড়ি থেকে ১০ হাজার মাইল দূরে যাচ্ছি না।”

    মার্কিন সেনাবাহিনীতে যোগদানে আপত্তি জানিয়ে তিনি বলেন, “তারা কেন আমাকে একটি ইউনিফর্ম পরে বাড়ি থেকে ১০ হাজার মাইল দূরে গিয়ে ভিয়েতনামের মানুষের ওপর বোমা ও গুলি ফেলতে বলছে, যেখানে লুয়াভিলের কথিত নেগ্রোদের সঙ্গে কুকুরের মতো আচরণ করা হয় এবং সাধারণ মানবাধিকার বঞ্চিত হয়?” “শুধু শ্বেতাঙ্গ দাস মালিকদের আধিপত্য বজায় রাখতে আরেকটি জাতিকে হত্যা ও পোড়াতে সহয়োগিতার জন্য আমি বাড়ি থেকে ১০ হাজার মাইল দূরে যাচ্ছি না।”

  • মুষ্টিযুদ্ধ নিয়ে আলি বলেন, “আমি লড়াই মিস করব না, লড়াই আমাকে মিস করবে।”
“তারা কি আর এমন কোনো লড়াকু পাবে যে কবিতা লেখে, লড়াইয়ের আগেই ফল বলে দিতে পারে, সবাইকে হারায়, মানুষকে হাসায়, মানুষকে কাঁদায় এবং আমার মতো এত লম্বা ও সুদর্শন?”

    মুষ্টিযুদ্ধ নিয়ে আলি বলেন, “আমি লড়াই মিস করব না, লড়াই আমাকে মিস করবে।” “তারা কি আর এমন কোনো লড়াকু পাবে যে কবিতা লেখে, লড়াইয়ের আগেই ফল বলে দিতে পারে, সবাইকে হারায়, মানুষকে হাসায়, মানুষকে কাঁদায় এবং আমার মতো এত লম্বা ও সুদর্শন?”

Print Friendly and PDF