বরিশালে গরু ব্যবসায়ীর ‘৩০ লাখ’ টাকা লুট

বরিশালে মেঘনা নদীতে কোরবানির পশুবাহী একটি ট্রলারে হানা দিয়ে একদল ‘ডাকাত’ ৩০ লাখ টাকা লুট করেছে বলে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।

বরিশাল প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 July 2022, 12:58 PM
Updated : 6 July 2022, 12:58 PM

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লালবয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে গরু ব্যবসায়ী আজিজ সিকদার জানিয়েছেন।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘ডাকাতরা’ ট্রলারে থাকা সকল গরু ও ছাগল ব্যবসায়ীর মোট ৩০ লাখ টাকা লুট করেছে। তারা ব্যবসায়ীদের মারধরও করেছে।

মাথায় জখম হওয়া মাইনুল ইসলামকে (২৫) মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার কালিগঞ্জ নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক ফারুক হোসেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ডকাতির শিকার আজিজ সিকদারসহ একাধিক গরু ব্যবসায়ীরে সঙ্গে কথা বলেছি। আজিজের ভাষ্যমতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থল হিজলা থানা এলাকায়।”

আজিজ সিকদার বলেন, মঙ্গলবার সকাল ৬টায় মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার চর এককরিয়া থেকে প্রায় ২০ জনের একদল গরু ও ছাগল ব্যবসায়ী একটি ট্রলার ভাড়া করে ২৮টি গরু ও ৫০টি ছাগল নিয়ে লক্ষ্মীপুরের মোল্লার হাটে যান।

“সেখানে সব ছাগল ও ১৮টি গরু বিক্রি করি; কিন্তু ১০টি গরু বিক্রি হয়নি। সেগুলো নিয়ে আমরা বাড়ির উদ্দেশ্যে ট্রলারে রওনা দিই।”

আজিজ বলেন, তাদের ট্রলারটি মেঘনা নদীর লালবয়া এলাকায় পৌঁছুলে অপর একটি জেলে ট্রলারে রড, লাঠি-সোটা নিয়ে ৭/৮ জনের একটি ডাকাত দল হামলা করে। তারা গরু ব্যবসায়ীদের ট্রলারে উঠে তাদের মারধর করে নগদ ৩০ লাখ টাকা নিয়ে গেছে।

ডাকাতদের মারধরে ট্রলারের মাঝি মাসুদ বয়াতি (২৫) ও গরু ব্যবসায়ী মাইনুল আহত হয়েছেন। এর মধ্যে মাইনুলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মাইনুল জানান, অন্যান্য ব্যবসায়ীদেরও মারধর করা হয়েছে। তবে তারা গুরুতরভাবে আহত হননি।

আজিজ বলেন, ডাকাত দলটি তার (আজিজ) দেড় লাখ, সাইফুল বেপারীর ৫ লাখ, ওদুদ বেপারীর আড়াই লাখ, ছাগল ব্যবসায়ী টিটু মাহেদের ৭ লাখসহ মোট ৩০ লাখ টাকা নিয়ে গেছে।

মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার চর এককরিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মকিম তালুকদার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ব্যবসায়ীরা তার ইউনিয়নের বাসিন্দা। তারা ডাকাতের হামলা ও লুটপাটের শিকার হয়েছেন বলে শুনেছেন। তবে ঘটনার শিকার কোনো ব্যবসায়ী তার কাছে এসে অভিযোগ করেননি।

এ বিষয়ে হিজলা থানার ওসি মো. ইউনুস মিঞা বিডিনিউজ টোয়েন্টফোর ডটকমকে বলেন, “ডাকাতির খবর পেয়েছি। কিন্তু এখন কেউ থানায় অভিযোগ দেয়নি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক