গোপালগঞ্জে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে হত্যা, স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

গোপালগঞ্জে যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড হয়েছে।

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 July 2022, 03:19 PM
Updated : 3 July 2022, 03:19 PM

রোববার গোপালগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হায়দার আলী খোন্দকার এ রায় দেন।

দণ্ডিত সহিদুল মোল্লাকে (৪২) একই সঙ্গে ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার মোচড়া গ্রামের রাঙ্গা মোল্লার ছেলে সহিদুল মোল্লা একই গ্রামেরেএক মেয়েকে বিয়ে করেন।

অভিযোগে বলা হয়, বিয়ের পর থেকে সহিদুল মোল্লা নানা অজুহাতে যৌতুক দাবিতে স্ত্রীর উপর নির্যাতন চালাতেন। ২০১৪ সালের জুলাই মাসে যৌতুক চাইলে স্ত্রী ঢাকায় চলে যান এবং গার্মেন্টসে চাকরি নেন। পরে সহিদুল তার স্ত্রীর পরিবারের সঙ্গে সমঝোতা করে স্ত্রীকে বাড়ি নিয়ে আসেন।

মামলায় আরও অভিযোগ করা হয়, বাড়িতে আনার কিছুদিন পর সহিদুল আবার স্ত্রীর কাছে ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। স্ত্রী যৌতুকের টাকা আনতে অস্বীকার করেন। এরপর সহিদুল ২০১৪ সালের ২০ নভেম্বর ডাক্তারের কাছে যাওয়ার কথা বলে স্ত্রীকে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন। পরে বাড়ির পাশে ফাঁকা মাঠে নিয়ে গলায় মাফলার জড়িয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন।

সরকার পক্ষেরিআইনজীবী বিশেষ পিপি রঞ্জিত কুমার বাড়ৈ জানান, ২১ নভেম্বর সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। ওইদিনই নিহতের বাবা বাদী হয়ে সহিদুল মোল্লাসহ সাত জনকে আসামি করে সদর থানায় মামলা করেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার এসআই তারেকুল হক সহিদুলের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি অভিযোগপত্র দেন।

আসামির পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট পিযুষ কুমার চন্দ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক