পটুয়াখালীতে স্কুলছাত্রীকে ‘হত্যায়’ প্রতিবেশী দম্পতি গ্রেপ্তার

পটুয়াখালীর গলাচিপায় অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে হত্যার মামলায় তাদের প্রতিবেশী এক দম্পতিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পটুয়াখালী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 June 2022, 01:48 PM
Updated : 30 June 2022, 01:48 PM

বুধবার রাতে উপজেলার গোলখালী ইউনিয়নের সুহরী গ্রাম থেকে মো. কালাম ও তার স্ত্রী রানী বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে গলাচিপা থানা পুলিশ জানিয়েছে।

গত রোববার রানী বেগম ডেকে নেওয়ার পর এই ছাত্রী নিখোঁজ হয়; পরদিন বাড়ির পাশে ডোবায় তার লাশ পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় নিহত ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মো. কালাম ও তার স্ত্রী রানী বেগমসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে গলাচিপা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

গলাচিপা থানার ওসি এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম মামলার বরাতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, প্রতিবেশী মো. কালাম ও নিহত ছাত্রীর পরিবারের মধ্যে সু-সম্পর্ক থাকার সুবাদে একে অপরের বাড়িতে যাওয়া আসা করতেন।

২৬ জুন রাতে মেয়েটির মা বাড়ি ছিলেন না; মেয়ে ও অসুস্থ বাবা বাড়িতে ছিলেন জানিয়ে ওসি বলেন, রাত ৯টার দিকে কালামের স্ত্রী রানী বেগম মেয়েটির বাড়ী গিয়ে তাকে তাদের বাড়ি নিয়ে যান।

ওসি আরও বলেন, “প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, রানী ওই মেয়েটিকে দিয়ে কোনো অসৎ কাজ বা উদ্দেশ্যের জন্য মেয়েটিকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। মেয়েটির সঙ্গে এমন কিছু ঘটেছে যা থেকে রক্ষা পেতে তাকে হত্যার পর লাশ গুম করতে চেয়েছিল।”

গ্রেপ্তারদের জিজ্ঞাসাবাদ ও ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর ঘটনার প্রকৃত কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে বলেও জানান ওসি শওকত।

গত রোববার [২৬ জুন] রাতে মেয়েটিকে ডেকে বাড়ি নিয়ে যান প্রতিবেশী রানী বেগম। এরপর থেকেই মেয়েটি নিখোঁজ হয়; পরদিন তার মা গলাচিপা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। বুধবার [২৯ জুন] সকালে মেয়েটির লাশ পাশের বাড়ির একটি ডোবা থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

মেয়েটি স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক