পদ্মা সেতু নিয়ে বিতণ্ডা: পিরোজপুরে মাদ্রাসা সুপারকে লাঞ্ছিতের অভিযোগ যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে

পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলায় পদ্মা সেতু নিয়ে ‘বিরূপ মন্তব্য’ করায় এক মাদ্রাসার সুপারের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন স্থানীয় এক যুবলীগ নেতা; ওই শিক্ষকও তাকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ এনেছেন।

পিরোজপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 June 2022, 07:23 AM
Updated : 29 June 2022, 07:38 AM

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) থান্দার খাইরুল হাসান জানান, উপজেলা সদরের একটি ওষুধের দোকানে সোমবার বাক-বিতণ্ডা হয়। পরে মাসাদ্রা সুপারের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দেন উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হেলাল উদ্দিন আকন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার সকালে ইন্দুরকানী বাজারের মাকসুদুল্লাহর ফার্মেসিতে বসে হেলাল উদ্দিন আকনসহ কয়েকজন চা পান করার সময় পদ্মা সেতুর উদ্বোধন নিয়ে আলোচনা করছিলেন। এ সময় বাজার করতে বালিপাড়া ইউনিয়নের এসডি মদিনাতুল উলুম দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মোহাম্মদ ওহিদুজ্জামান এলে তাকে বসতে দেন।

আলোচনার একপর্যায়ে মাদ্রাসার সুপার পদ্মা সেতু নিয়ে ‘প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে বিরূপ মন্তব্য’ করলে হেলাল উদ্দিন তার ওপর চড়াও হন এবং তাকে টেনেহিঁচড়ে থানার দিকে নিয়ে যান। পরে স্থানীয়রা তাকে সরিয়ে নেন।

এ বিষয়ে যুবলীগ নেতা হেলাল উদ্দিন বলেন, “মাদ্রাসা সুপারকে বসতে দেওয়ার পর পদ্মা সেতুর বিষয়ে আলোচনার এক পর্যায়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে বিরূপ মন্তব্য করেন।

“এ বিষয় নিয়ে তার সঙ্গে আমার রাগারাগি হয় এবং আমি তাকে থানায় নিতে চেয়েছিলাম। তবে স্থানীয়দের অনুরোধে আমি বাজার থেকে চলে আসি এবং থানায় একটি অভিযোগ করি।”

অন্যদিকে মাদ্রাসা সুপার মোহাম্মদ ওহিদুজ্জামান বলেন, “ফার্মেসিতে পদ্মা সেতু নিয়ে কথা হচ্ছিল। ‘পদ্মা সেতু আমাদের জন্য সৌভাগ্যের, তবে ওটা কারও একার টাকায় নয়, আমাদেরও টাকা আছে’- বলতেই হেলাল আমার ওপর চড়াও হয় এবং লাঞ্ছিত করেন।”

তার দাবি, মাদ্রাসার কমিটি গঠন নিয়ে বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটতে পারে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানিয়েছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক