খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ প্রত্যাহার

যৌন হয়রানি, শারীরিক ও মানসিক নিপীড়নের অভিযোগে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।

খুলনা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 June 2022, 03:54 PM
Updated : 15 June 2022, 03:54 PM

তদন্ত কমিটির সুপারিশে ৮ জুন সিন্ডিকেটের সভায় বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয় বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার খান গোলাম কুদ্দুস জানান।

গত বছর বাসায় ডেকে নিয়ে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ডিসিপ্লিনের সহযোগী অধ্যাপক ছোটন দেবনাথের বিরুদ্ধে।

অভিযোগ করেন বিশ্ববিদ্যালেয়েরই এক শিক্ষিকা।

অভিযোগের পর ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

রেজিস্ট্রার বলেন, ক্যাম্পাসের বাইরের ঘটনা হওয়ায় অভিযোগটি তারা বিবেচনা করেননি। শারীরিক এবং মানসিক নিপীড়নের প্রমাণও তারা পাননি। বিশ্ববিদ্যালয়ের এখতিয়ার-বহির্ভূত হওয়ায় তারা এ বিষয়ে কিছু করতে পারেন না। অভিযোগকারী আদালতের আশ্রয় নিতে পারেন।

তবে এই সিদ্ধান্ত নিতে ১০ মাস সময় লাগার কারণ বলতে পারেননি রেজিস্ট্রার।

অভিযোগকারী শিক্ষিকা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

তিনি বলেন, “অভিযোগ আমলে নিয়ে তদন্ত শুরু করে কমিটি। আমাকে তিনবার কমিটির কাছে সাক্ষাৎকার দিতে হয়েছে। ডিসিপ্লিনের সব শিক্ষকের সাক্ষাৎকারও নিয়েছে কমিটি।

“তদন্ত শুরুর ১০ মাস পর জানানো হচ্ছে অভিযোগটি নাকি কমিটির বিবেচনার বিষয় নয়। শারীরিক নির্যাতন ও মানসিক নিপীড়নের ব্যাপারে তারা নাকি কোনো প্রমাণ পাননি।”

প্রমাণ সম্পর্কে তিনি বলেন, “নিপীড়নের প্রমাণস্বরূপ বিভিন্ন সময় ওই শিক্ষকের পাঠানো এসএমএস তদন্ত কমিটিকে দেওয়া হয়। ঘটনার পর ওই শিক্ষক যে ক্ষমা চেয়েছিলেন সেই রেকর্ডও দেওয়া হয়। এর পরও নাকি তদন্ত কমিটি কোনো প্রমাণ পায়নি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক