কুমিল্লায় ভোটের সকালে বৃষ্টিতে ছন্দপতন

শুরুটা ভালোই ছিল, নির্ধারিত সময়ের আগেই কুমিল্লা সিটি নির্বাচনের কেন্দ্রে কেন্দ্রে জমে উঠছিল ভোটের লাইন, কিন্তু ভোট শুরুর ঘণ্টাখানেকের মধ্যে তাতে বাগড়া দিল বৃষ্টি।

কুমিল্লা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 June 2022, 04:44 AM
Updated : 15 June 2022, 05:25 AM

সকাল থেকে প্রায় সব কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল মোটামুটি। তবে বৃষ্টির পর ভোট দিতে অপেক্ষমাণ ভোটাররা কেন্দ্রের ভেতরে ঢুকে পড়েন। স্কুলের সেডগুলোতেও ঢুকে পড়তে দেখা গেছে ভোটারদের।

সকাল ৯টার দিকে মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হতেই কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট স্কুল মাঠের লম্বা লাইন ভেঙে বারান্দায় আশ্রয় নিলেন ভোটাররা।

কাজী নজরুলের স্মৃতিবিজড়িত রানী দীঘির পাড়ের ভিক্টোরিয়া কলেজ কেন্দ্রে ভোট শুরুর আগেই বেশ লম্বা লাইন দেখা গিয়েছিল ভোটারদের। সেখানে ৩ হাজার ৮৭ জন নারী ভোটার ভোট দেবেন বলে জানালেন প্রিজাইডিং অফিসার মো. মিজানুর রহমান।

বৃষ্টি শুরুর হওয়ার পর ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের বজ্রপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা গেল আরও কিছু মানুষের সঙ্গে লাইনে দাঁড়িয়েই ভিজছেন পঞ্চাশোর্ধ্ব আনোয়ার হোসেন।

তিনি বললেন, ভোট দিতে যেহেতু এসেছেন, ভোট দিয়েই যাবেন। বৃষ্টি থামার পর আবার এসে লম্বা লাইনে দাঁড়ানোর পরীক্ষা দিতে তিনি রাজি নন।

আবহাওয়া যে খারাপ হতে পারে আগেই জানা ছিল। আষাঢ়ের প্রথম দিন বলে কথা। ভোর থেকেই কুমিল্লার আকাশে অল্প বিস্তর মেঘ ছিল। তাই অনেকে সকাল সকাল কেন্দ্রে চলে এসেছিলেন বৃষ্টি নামার আগে ভোট দেওয়ার কাজটি সেরে নিতে। 

৮ নম্বর ওয়ার্ডের ঠাকুরপাড়ার বাসিন্দা মোহাম্মদ ইয়াকুব শহরের রানীরবাজার এলাকার মডার্ন স্কুল কেন্দ্রে যখন পৌঁছালেন, তখনও আবহাওয়া ভালোই ছিল। বৃষ্টি এল তিনি কেন্দ্রে ঢুকে যাওয়ার পর। 

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট শুরুর পরপরই এল বৃষ্টি; বুধবার সকালে শহরের হারুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে লাইনে দাঁড়িয়ে ভিজতে হল ভোটারদের। ছবি: আব্দুর রহমান

কিন্তু তার ছেলে ফয়জুল মোবারক সাকির ভাগ্য অতটা ভালো ছিল না। তার ভোট ১০ নম্বর ওয়ার্ডের ফয়জুন্নেছা কলেজ কেন্দ্রে। পৌঁছাতে একটু দেরি হওয়ায় তাকে কাকভেজা হতে হল।

আধা ঘণ্টার মত কুমিল্লা নগরীকে ভিজিয়ে বৃষ্টি থামলে ১০টার পর আবার কেন্দ্রে আসতে শুরু করেন ভোটাররা। সকাল পৌনে ১০টার দিকে ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট স্কুল কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করলেন রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী।

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “বেশ কয়েকটি কেন্দ্র পরিদর্শন করেছি, সবাই সুন্দরভাবে ভোট দিচ্ছেন। বৃষ্টি আসার কারণে ভোটার উপস্থিতি একটু কম আছে। এছাড়া সব কিছু ঠিক আছে সুন্দরভাবে ভোট হচ্ছে।”

সোয়া দুই লাখের বেশি ভোটারের এ নগরে ভোট নেওয়া হচ্ছে ইভিএমে। আর এবারই প্রথম ১০৫টি কেন্দ্রের সব ভোট কক্ষে রয়েছে সিসি ক্যামেরা।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ চলবে। ওই সময়ের মধ্যে যারা কেন্দ্রে পৌঁছাবেন, তাদের সবার ভোটই নেওয়া হবে।

ইভিএমে ভোট হওয়ায় গণনার ঝামেলা নেই। সবগুলো থেকে ভোটের ফল যাবে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে রিটার্নিং কর্মকর্তার নিয়ন্ত্রণ কক্ষে। সেখান থেকেই সমন্বিত ফল ঘোষণা করা হবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক