জয়পুরহাটে নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর হুমকির অভিযোগ

জয়পুরহাটের পাঁচবিবির আওলাই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইব্রাহীম হোসেনের বিরুদ্ধে হুমকির অভিযোগ তুলেছেন প্রতিদ্বন্দ্ব প্রার্থী।

জয়পুরহাট প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 June 2022, 04:01 PM
Updated : 13 June 2022, 04:01 PM

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আমিনুর রহমান মিয়া জানান, সপ্তম ধাপে পাঁচবিবির আওলাই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল গত ৭ ফেব্রুয়ারি। তবে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইব্রাহিম হোসেনের প্রার্থিতা চ্যালেঞ্জ করে হাই কোর্টে মামলা করেন দলের বিদ্রোহী প্রার্থী একরামুল হক তাওহীদ চৌধুরী। এতে প্রথমে ইব্রাহিম হোসেনের প্রার্থিতা বাতিল হলে তিনি আপিল করেন।

তিনি আরও জানান, এ অবস্থায় উচ্চ আদালতের নির্দেশে গত ৬ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন কমিশন থেকে ওই নির্বাচন স্থগিত করা হয়। পরে নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ১৫ জুন নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়।

এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীসহ মোট ৪ জন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী, সাধারণ সদস্য পদে ৩২ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বতা করছেন।

নির্বাচনের দিন যতই কাছে আসছে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের উদ্বেগ ও শঙ্কা ততই বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশেষ করে আওয়মী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ও তার কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে হুমকি-ধামকির অভিযোগ করেন প্রতিদ্বন্দ্ব প্রার্থীরা। একই কারণে ভোটাররাও জানিয়েছেন নানা শঙ্কার কথা।

স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুল হক, ওবায়দুর রহমান ও তাওহীদ চৌধূরী অভিযোগ করেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা তাদের কর্মী-সমর্থকসহ সাধারণ ভোটারদের হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন।

ওই প্রার্থীরা আরও অভিযোগ করেন, ভোটারদের এই বলে হুমকি দিচ্ছে যে তারা নৌকায় ভোট দিলে যেন ভোট কেন্দ্রে যান; অন্যথায় নয়।

তবে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইব্রাহিম হোসেন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, “সরকারের দৃশ্যমান উন্নয়নে মানুষ ভালোবেসে নৌকায় ভোট দেবেন। আমার বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের অভিযোগ সত্য নয়।”

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আমিনুর রহমান মিয়া বলেন, নির্বাচন হবে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ। সুষ্ঠু নির্বাচন করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক অবস্থানে থাকবে। সুতরাং প্রার্থী বা ভোটারদের উদ্বেগের কোনো কারণ নাই।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক