চাঁদপুর পলিটেকনিকে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ, আহত ১০

চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ছাত্রলীগের দুটি পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

চাঁদপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 May 2022, 06:36 PM
Updated : 12 May 2022, 06:36 PM

বৃহস্পতিবার দুপুরে বাইপাস সড়কের রাজমহল হোটেলের সামনে এই সংঘর্ষ হয়।

আহতদের মধ্যে রয়েছেন উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব আলম (৩২), মো. তুহিন (২৩), গাজী রবিউল আউয়াল (২২), শেখ সজিব (২০), নূর মোহাম্মদ (২৩), শাওন (১৮) মো. মহিউদ্দিন (১৮), মেহেদী হাসান (১৮) ও শাহাদাত হোসেন (২০)। একজনের নাম জানা যায়নি।

তাদের মধ্যে তুহিন ও রবিউলকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহত কয়েকজন ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইনস্টিটিউটে ছাত্রলীগের একাংশের নেতা মো. তুহিন ও শাকিলের নেতৃত্বে একটি মিছিল ক্যাম্পাস থেকে কচুয়া বিশ্বরোড এলাকায় রাজমহল হোটেলের সামনে এলে সেখানে আগে থেকে অবস্থান নেওয়া শেখ সজিব অনুসারীদের সঙ্গে বাগবিতান্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে দুটি পক্ষ সংঘর্ষে জড়ায়।

খবর পেয়ে কচুয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

সংঘর্ষে আহত ছাত্রলীগ নেতা তুহিনের ভাষ্য, “আমাদের মিছিলটি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব আলমের অফিসের সামনে গেলে ভাইস চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে মিছিলের উপর হামলা করা হয়।”

আরেকটি অংশের নেতা শেখ সজিব ও নুর মোহাম্মদ বলেন, একটি মিছিল থেকে কচুয়ার সিনিয়র নেতাদের নামে উচ্ছৃংখল বক্তব্য প্রদান করে এবং ঘটনাস্থলে অবস্থান নেওয়া ছাত্রলীগ কর্মীদের উপর হামলা করে।

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব আলম সংবাদকর্মীদের বলেন, “ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় পক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা করি। তাদের  নিবৃত্ত করার সময় আমিও হাতে ব্যথা পাই।”

কচুয়া থানার ওসি মো. মহিউদ্দিন বলেন, “চাঁদপুর পলিটেকনিক ছাত্রলীগের কমিটি সংক্রান্ত বিষয়ে ছাত্রলীগের দুটি পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করি।”

আইন-শৃংখলা রক্ষার্থে ঘটনাস্থলে অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

পরে জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (কচুয়া সার্কেল) মো. আবুল কালাম চৌধুরী ও কচুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোতাছেম বিল্যাহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক