জয়পুরহাটে বিএনপির ইফতার মাহফিলে ছাত্রদলের ২ নেতাকে পিটুনি

জয়পুরহাটে বিএনপির ইফতার মাহফিল উপলক্ষে আয়োজিত কর্মী সমাবেশে দুই ছাত্রদল নেতাকে প্রতিপক্ষের সমর্থকরা পিটিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জয়পুরহাট প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 April 2022, 07:37 AM
Updated : 29 April 2022, 11:56 AM

জেলা শহরের দাদড়া জন্তিগ্রাম এলাকায় বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আহত জয়পুরহাট শহর শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক শুভ ও জয়পুরহাট সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক নাইমকে জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে ও কর্মী সমাবেশে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে বক্তব্য দেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসিচব রুহুল কবীর রিজভী, সহসাংগঠনিক সম্পাদক ওবায়দুর রহমান চন্দন, জাসাসের সহসভাপতি জাহিদুল আলম হিটো, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্ববায়ক গোলজার হোসেন।

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যক্ষ শামছুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জেলা ও বিভাগীয় নেতারাও বক্তব্য দেন। এর এক পর্যায়ে শুভ ও নাইম ছবি তোলতে যান। এ নিয়ে শামসুল হক এবং জেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মমতাজ উদ্দিন মণ্ডলের সমর্থকদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। তখন শুভ ও নাইমকে কিলঘুষি মারে প্রতিপক্ষের সমর্থকরা। পরে সিনিয়র নেতাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়। নাইম ও শুভ মমতাজ উদ্দিনের সমর্থক হিসেবে পরিচিত।   

এ ঘটনায় ছাত্রদলের দুই নেতা আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ

এ ব্যাপারে মমতাজ উদ্দিন মণ্ডল অভিযোগ করেন, “আজকে যারা ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেছেন, তারা আহ্বায়ক কমিটিতে সংখ্যায় বেশি বলে দলের নেতৃত্ব কুক্ষিগত করতে চান। বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের দুর্দিনের নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে তারা দল চালাতে চান।

“এ কারণেই ছাত্রদলের দুই নেতাকে নির্মমভাবে পিটিয়ে আহত করেছে তারা। বিএনপিকে এরাই বিভক্ত করছে। তাদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় কমিটিতে অভিযোগ দেওয়া হবে।”

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যক্ষ শামছুল হক অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, “বিএনপি একটি বড় দল। তাই ভুল বোঝাবুঝির জন্য অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাটি ঘটেছে। এখানে কোনো গ্রুপিংয়ের বিষয় নেই।”

জয়পুরহাট সদর থানার ওসি এ কে এম আলমগীর জাহান বলেন, গোয়েন্দাদের কাছ থেকে বিষয়টি তারা জেনেছেন। যদি মামলা হয় তাহলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইফতার অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির ফজলুর রহমান, রাজশাহী বিভাগীয় যুবদলের সহসাধারণ সম্পাদক ওবায়দুর রহমান সুইট, বিএনপি নেতা মাসুদ রানা প্রধান, আব্দুল ওয়াহাব, ইব্রাহিম হোসেন ফকির, অঞ্জুমান, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক শাহনেওয়াজ কবির শুভ্র, সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক আবু রাইহান উজ্জল, যুগ্ম আহ্বায়ক মঞ্জুরে মওলা পলাশ, সদস্য সচিব মোক্তাদুল হক আদানান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক আলমগীর হোসেন, সদস্য সচিব শামস মতিন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মামুনুর রশীদ প্রধান।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক