রাজবাড়ীতে ডায়রিয়া: হাসপাতালে ২৪ নার্সসহ ভর্তি শতাধিক

রাজবাড়ী হাসপাতালে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে।

রাজবাড়ী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 April 2022, 05:18 PM
Updated : 19 April 2022, 05:18 PM

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজবাড়ী নার্সিং ইনস্টিটিউটের নার্সসহ ১১১ জন ডায়রিয়া রোগী সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

১২ শয্যার ডায়রিয়া ওয়ার্ডে জায়গা সংকুলান না হলেও অন্য ওয়ার্ডে এবং হাসপাতালের বারান্দায় শয্যা দিয়ে রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

তবে চিকিৎসক ও নার্স পর্যাপ্ত আছেন বলে কর্তৃপক্ষের ভাষ্য।  

মঙ্গলবার সরেজমিন হাসপাতালে দেখা যায়, অতিরিক্ত রোগীর চাপে শয্যা সংকুলান না হওয়ায় গত কয়েকদিন হাসপাতালের বারান্দা বা মেঝেতে এমকি গাছতলায় মাদুর বিছিয়েও চিকিৎসা নিতে হয়েছে রোগীদের। সেই চিত্র এখন নেই। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীদের জন্য হাসপাতালের বারান্দা ও অনান্য ওয়ার্ডে প্রত্যেকটি রোগীকে শয্যা দিয়ে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে। শয্যা নিশ্চিত করতে পারলেও ডায়রিয়া রোগীর চাপ রয়েছে এখনও।

চিকিৎসা নিতে আসা রোকেয়া বেগম বলেন, বৃহস্পতিবার তার মেয়েকে চিকিৎসা দিতে আসেন হাসপাতালে। সে সময় কোনো বেড পাননি। মেঝেতে মাদুর বিছিয়ে চিকিৎসা নিতে হয়েছে। গত শনিবার মেয়ে সুস্থ হলে বাড়ি ফিরে যান। রোববার সকাল থেকে তার ডায়রিয়া শুরু হলে হাসপাতালে আসেন। এখন তিনি হাসপাতালের বারান্দায় বেডে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, ডাক্তার, নার্স এসেছেন; স্যালাইন দিয়েছেন। মাঝে মধ্যে এসে খোঁজ খবর নিচ্ছেন।

অপর প্রশ্নের জবাবে বলেন, “সব ওষুধ হাসপাতাল থেকে দিচ্ছে না; কিছু ওষুধ বাইরে থেকে কিনে আনতে হচ্ছে।”

আরেক রোগীর স্বজন ইয়াছিন মোল্লা বলেন, তার বাবা-মা দুজনেই ডয়রিয়া আক্রান্ত। ওয়ার্ডে বেড না পেয়ে হাসপাতালের বারান্দায় বেডে তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ডাক্তার ওষুধ দিয়েছেন, স্যালাইন চলছে। আগের থেকে এখন অনেকটা সুস্থ।”

হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ডের জ্যেষ্ঠ সেবিকা বিনতা রায় চৌধুরী বলেন, ১২ শয্যার বিপরীতে বর্তমানে ১১১ জন রোগী ভর্তি আছেন। সেবিকার কোনো সংকট নেই এই মূহূর্তে। রোগীর চাপ থাকায় হিমশিম খেতে হচ্ছে।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শাখাওয়াত হোসেন জানান, ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে যারা ভর্তি আছে তাদের ডায়রিয়া কমে আসছে। ধারণা করা হচ্ছে পানি থেকে ডায়রিয়ার প্রাকোপটা বাড়ছে। হাসাপাতাল থেকে যতটা সম্ভব রোগীদের ওষুধ দেওয়া হচ্ছে। সেই সাথে যেসব ওষুধ হাসপাতালে সাপ্লাই নেই সেগুলো বাধ্য হয়ে বাইরে থেকে কিনে আনতে হচ্ছে।

আগামী চার থেকে পাঁচ দিনের মধ্যে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমতে শুরু করবে বলে তারা আশা করছেন।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. শেখ মোহাম্মদ হান্নান জানান, বর্তমানে ডায়রিয়া পরিস্থিতি তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। গত কয়েকদিনে রাজবাড়ী নার্সিং ইনস্টিটিউটে অধ্যয়নরত ৪০ জন নার্স (সেবিকা) ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সদর হাসপাতালে ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছেন ২৪ জন। হাসপাতালটিতে ওষুধের সংকট নেই, রয়েছে পর্যাপ্ত নার্স ও চিকিৎসক।

ডায়রিয়ার প্রকোপ কমাতে সবাইকে সচেতন হতে হওয়ার পরামর্শ দিয়ে খাবার আগে অবশ্যই সাবান দিয়ে হাত ভালো করে ধুয়ে নিতে এবং বিশুদ্ধ পানি পান করতে বলেন।

আরও পড়ুন:

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক