সিরাজগঞ্জে পাউবো প্রকৌশলীকে ‘মারধর’, নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার

পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলীকে  মারধর ও সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে সিরাজগঞ্জে নবনির্বাচিত এক ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Jan 2022, 11:32 AM
Updated : 15 Jan 2022, 11:32 AM

আটক আব্দুস সাত্তার উপজেলার ভদ্রঘাট ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য। 

শুক্রবার  মামলার পর শনিবার তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয় বলে জানান কামারখন্দ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আহসানুজ্জামান।

পরিদর্শক বলেন, তাছাড়া এ মামলায় সাত্তারের তিন সহযোগীকেও গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃত অন্যরা হলেন- উপজেলার চকনূরনগর গ্রামের খোরশেদ শেখের ছেলে আব্দুল মজিদ (৫২), একই গ্রামের আব্দুস সোবহান শেখের ছেলে সুলতান আলী শেখ (৬৫) ও মো. সুলতানের ছেলে আশরাফুল ইসলাম (৩০)।

সকালে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, শুক্রবার সকালে উপজেলার চকনূরনগর গ্রামের পাশে নদী পুনঃখননসহ তীর সংরক্ষণ কাজে বাধা দেওয়ার পাশাপাশি আসামিরা দুটি ভেকু মেশিন ভাঙচুর ও পাউবোর উপ-সহকারী প্রকৌশলী হায়দার আলীকে মারধর করেন।

পরিদর্শক  বলেন, উপজেলার নূরনগর গ্রামের আব্দুস সাত্তার ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন। এখনও তিনি শপথ নেননি।

নির্বাচনের আগেও সাত্তার একটি মামলায় কারাগারে ছিলেন। জামিনে মুক্ত হয়ে তিনি ভোট করে বিজয়ী হন। তার বিরুদ্ধে মারামারি ও চাঁদাবাজির অভিযোগে আরও তিনটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে বলে জানান আহসানুজ্জামান।

সর্বশেষ শুক্রবার রাতে সাত্তারের বিরুদ্ধে মামলাটি করেন পাউবো এনায়েতপুরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আব্দুল ওহাব। এতে ২৯ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ১৫০ থেকে ২০০ ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, শুক্রবার সকালে উপজেলার চকনূরনগর গ্রামের পাশে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত ‘বাঙ্গালী-করতোয়া-ফুলজোড় ও হুড়াসাগর নদী পুনঃখননসহ তীর সংরক্ষণের কাজ শুরু হয়। এ সময় আব্দুস সাত্তারের নেতৃত্বে আসামিরা ঠিকাদারের দুটি ভেকু মেশিন ভাঙচুর করেন। দুই সেনাসদস্য, ভেকু মেশিনের চালক ও সহকারী এবং ঠিকাদারের প্রতিনিধি তাদের বাধা দেন। তখন আসামিরা উপ-সহকারী প্রকৌশলী হায়দার আলীকে মারধর করেন।

খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন, সেনাসদস্য, পাউবোর কর্মকর্তা ও পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে যান।

সে সময় ঘটনাস্থল থেকে এই চারজনকে আটক করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয় বলে জানান পরিদর্শক আহসানুজ্জামান।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক