ধলেশ্বরীতে ট্রলার ডুবিতে নিখোঁজ ৮: লঞ্চ আটক

নারায়ণগঞ্জে ধলেশ্বরী নদীতে ট্রলার ডুবে ‘আটজন’ নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় ফারহান-৬ নামে একটি লঞ্চ আটক করেছে পুলিশ।

বরিশাল প্রতিনিধিনারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ও বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Jan 2022, 07:36 AM
Updated : 6 Jan 2022, 07:51 AM

ঢাকার কেরাণীগঞ্জের একটি ডকইয়ার্ড থেকে লঞ্চটি আটক করা হয় বলে নারায়ণগঞ্জ বিআইডব্লিউটিএর উপ-পরিচালক বাবুলাল বৈদ্য জানান।

বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় ধলেশ্বরীতে ট্রলার ডুবির পর জেলা ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আরেফিন ১২ জন নিখোঁজ বলে জানিয়েছিলেন। পরে নারায়ণগঞ্জের ইউএনও রিফাত ফেরদৌস জানান, এ ঘটনায় স্বজনরা এক পরিবারের চারজনসহ আটজনের খোঁজ চেয়ে নাম নিবন্ধন করিয়েছেন।

বিআইডব্লিউটিএ কর্মকর্তা বাবুলাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “দুর্ঘটনার জন্য দায়ী ফারহান-৬ নামের এই লঞ্চটি। এর মালিক বরিশাল-৩ (মুলাদি-বাবুগঞ্জ) আসনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু। লঞ্চটি ঢাকা-বেতুয়া রুটে চলাচল করে। দুর্ঘটনার পর কেরাণীগঞ্জের একটি ডকইয়ার্ডে লঞ্চটি আটক করা হয়।”

এ ব্ষিয়ে সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপুর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি সাড়া দেননি।

ডুবে যাওয়া ট্রলারটিও এখনও শনাক্ত করতে পারেননি উদ্ধারকারীরা।

ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আরেফিন বলেন, ঘটনার পর থেকেই তারা ডুবে যাওয়া ট্রলারটি শনাক্ত এবং নিখোঁজদের খুঁজতে কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের সঙ্গে উদ্ধারকাজে নৌবাহিনী, বিআইডব্লিউটিএ, কোস্টগার্ড অংশ নিয়েছে।

দুর্ঘটনাটি ধলেশ্বরী-বুড়িগঙ্গার মোহনায় ঘটেছে। এ কারণে জোয়ার-ভাটায় নিখোঁজরা দূরে চলে যেতে পারে বলে তিনি জানান।

বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ধলেশ্বরী ও বুড়িগঙ্গা নদীর মোহনার কাছে ঘন কুয়াশার মধ্যে ট্রলারটিতে করে শতাধিক যাত্রী নদী পার হচ্ছিলেন। সে সময় হঠাৎ করে যাত্রীবাহী লঞ্চ এসে ধাক্কা দেয়। এতে ট্রলারটি ডুবে যায়। ট্রলারের যাত্রীরা অনেকে আশপাশের নৌযানের সহায়তায় এবং সাঁতরে তীরে উঠলে সবাই উঠতে পারেননি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক