পদ্মা সেতুর পিচ ঢালাই শুরু

পদ্মা সেতুর সড়ক পথের পিচ ঢালাই শুরু হয়েছে। একশ মিলিমিটার পুরুত্বের পিচ ঢালাই [কার্পেটিং] হবে দুই স্তরের। প্রথম স্তর হবে ৬০ মিলিমিটার এবং দ্বিতীয় স্তর হবে ৪০ মিলিমিটারের।

ফারহানামির্জা, মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Nov 2021, 04:01 PM
Updated : 10 Nov 2021, 04:01 PM

পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, বুধবার ৬০ মিলিমিটার পুরুত্বের প্রথম স্তরের কার্পেটিং শুরু হয়েছে সেতুর ৪০ নম্বর খুঁটি এলাকা থেকে। সকাল ৯টা ৪০ মিনিট থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত ৩৪৪ মিটার এলাকায় কার্পেটিং হয়েছে।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতুতে এখন চলছে একেবারে শেষ পর্যায়ের কাজ মূল সেতুর কার্পেটিং। সড়ক পথের চার লেনের পদ্মা সেতুর মাঝে ডিভাইডারের পশ্চিম পাশের দুই লেনে চলছে এই পিচ ঢালাই। ধূসর, হলুদ, সাদা ও কমলা রংয়ের ‘ওয়াটার প্রুফ লেয়ারের’ উপর প্রথম স্তরে ‘লেয়ারে’ ৬০ মিলিমিটার পুরো করে কার্পেটিং করা হচ্ছে। পরবর্তীতে দ্বিতীয় ‘লেয়ারে’ আরও ৪০ মিলিমিটার পুরুত্বের কার্পেটিং করা হবে।

“দুই স্তরে একশ মিলিমিটার পুরুত্বের এই কার্পেটিং বিশ্বমানের। শত বছরের আয়ুষ্কাল ঠিক রেখে আগামী জুনের মধ্যে যান চলাচল উপযোগী করতেই কাজ চলছে।”

প্রকল্প পরিচালক জানান, প্রতিদিন কার্পেটিং হবে না। নানা প্রসেস আছে। কার্পেটিংয়ের (পিচ ঢালাই) কাজ শেষ হবে আগামী এপ্রিলে। পিচ ঢালাই শেষে রঙের কাজ ও আলোকসজ্জা হলেই সেতু যানবাহন চলাচলের উপযোগী হবে এবং উদ্বোধন করা হবে।

পদ্মা সেতুর কার্পেটিং শুরু হওয়ায় খুশি পদ্মা পাড়ের মানুষ।

সেতুর পশ্চিমে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কুরুলির চরের বাসিন্দা জজ শিকদার বলেন, “আজ পদ্মা সেতুর পিচ ঢালাই শুরু হওয়ায় এখন মনে হচ্ছে আগামী বছর থেকে ব্রিজ দিয়ে সত্যি সত্যি গাড়ি চলবে।”

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া গ্রামের বাসিন্দা গোলাম মোস্তফা বলেন, “পিচ ঢালাই শুরু হওয়া মানেই তো এর কাজ শেষ হয়ে গেলে যানবাহনের চলাচলের জন্য সেতু খুলে দেওয়া হবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক