মেহেরপুরে গুলি করে এজেন্ট ব্যাংক কর্মীকে হত্যা

‘টাকা ছিনতাইয়ে ব্যর্থ হয়ে’ মেহেরপুরে একটি ব্যাংক এজেন্টের কর্মকর্তাকে গুলি করে হত্যা করেছে ছিনতাইকারীরা।

মেহেরপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 August 2021, 10:56 AM
Updated : 26 August 2021, 11:12 AM

বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার খোকসা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত খাদেমুল ইসলাম (৩৫) মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার কোমরপুর বাজারে অবস্থিত সিটি ব্যাংকের একটি এজেন্ট শাখার ব্যবস্থাপক ছিলেন।

তিনি মুজিবনগরের যতারপুর গ্রামের মিনারুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খাদেমুল মেহেরপুর প্রধান এজেন্ট শাখা থেকে টাকা নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে গাংনী যাচ্ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান বলেন, সদর উপজেলার খোকসা গ্রামে কয়েকজন ছিনতাইকারী তার পথরোধ করে টাকাভরতি ব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। খাদেমুল চিৎকার দিলে দুর্বৃত্তরা তাকে গুলি করে পালিয়ে যায়। তবে তার সঙ্গে থাকা টাকা তারা নিতে পারেনি।

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে তিনি আরও বানান, একটি মোটরসাইকেলে চড়ে আসা তিন দুর্বৃত্ত গুলি করে পালিয়েছে। তাদের তিনজনের সবার মাথায় হেলমেট ছিল।

খাদেমুলের স্কুল ব্যাগে ৪৬ লাখ টাকা ছিল বলে খাদেমুলের চাচাতো ভাই রানা জানান।

প্রত্যক্ষদর্শী সাহারবাটি গ্রামের রোহিদুল ইসলাম বলেন, খাদেমুল গুলিবিদ্ধ অবস্থায় চিৎকার করলে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে গাংনী হাসপাতালে নেওয়া হয়।

জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ফেরদৌস পারভেজ বলেন, খাদেমুল হোসেনের পিঠে গুলি লেগেছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

খাদেমুলের বাবা মিনারুল ইসলাম জানান, পূর্বপরিকল্পিতভাবে গুলি করে তার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করলে অপরাধীদের শনাক্ত করা সম্ভব হবে।

খাদেমুল ইসলামের মামা যতারপুর গ্রামের সুজন বলেন, খাদেমুল ইসলামকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পরপরই মারা যান।

গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান বলেন, ঘটনার পরপরই পুলিশ সেখানে যায়। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করতে অভিযানে নেমেছে পুলিশ।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি জুলফিকার আলী জানান, অপরাধীদের শনাক্ত করা গেছে। তারা পালিয়ে আছে। দ্রুত তাদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ মাঠে আছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক