রাবি শিক্ষক ড. সুজিতের বিরুদ্ধে এমপির ভাইয়ের মামলা

বাবাকে ‘রাজাকার’ বলার অভিযোগে নাটোরের আদালতে মামলা করেছেন নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্যের ভাই সাজেদুল ইসলাম।

নাটোর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 August 2021, 01:26 PM
Updated : 10 August 2021, 01:26 PM

মঙ্গলবার নাটোরের অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট গোলজার রহমান শুনানি শেষে নাটোর র‌্যাব ক্যাম্পকে অভিযোগটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেন বলে জানিয়েছেন জেলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পিপি সিরাজুল ইসলাম।

আসামিরা হলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সুজিত সরকার এবং নাটোর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিউল আযম স্বপন।

মামলার বাদী সাজেদুল ইসলামের অভিযোগ, গত ২৫ জুলাই দুপুরে নাটোর শহরের এক চাইনিজ রেস্টুরেন্টে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সংবাদ সম্মেলনে শফিউল আযম স্বপন নাটোর-২ আসনের এমপি শফিকুল ইসলামের বাবাকে ‘রাজাকার’ বলে দাবি করেন।

শফিকুল তার দাবির সমর্থনে অধ্যাপক সুজিত সরকারের লেখা ‘নাটোর জেলার ইতিহাস-ঐতিহ্য ও মুক্তযুদ্ধ’ বইটি সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন। বইটির ৬শ নম্বর পৃষ্ঠায় রাজাকারের তালিকায় এমপি শফিকুল ইসলামের বাবা হাসান আলী সরদারের নাম লেখা রয়েছে।

বাদীর আরও অভিযোগ, আসামিরা ‘পরিকল্পিতভাবে তাদের বাবার নাম রাজাকার তালিকায় প্রকাশ ও প্রচার করে তাদেরকে জাতির সামনে অপদস্ত করেছেন’।

এ মামলায় নাটোরের ছয়জন মুক্তিযোদ্ধাসহ সাতজনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

মামলা করার সময় বাদীর পক্ষে বক্তব্য উপস্থাপন করেন আইনজীবী আরিফুর রহমান সরকার ও সাঈম হোসেন। এ সময় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের কয়েকজন নেতাও আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

নাটোর র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মো. সানরিয়া চৌধুরী বলেন, “মামলা হয়েছে বলে শুনেছি। তবে মামলার আদেশ ও নথি এখনও পাইনি।”

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সুজিত সরকার বলেন, “মামলার কথা শুনেছি। তবে এটা নিয়ে আমি ভীত নই। গবেষণা করে বই লিখেছি। গবেষণার তথ্য প্রমাণ হাজির করার জন্য প্রস্তুত আছি।

এর আগে গত সোমবার নাটোর-২ (সদর-নলডাঙ্গা) আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানায় অধ্যাপক সুজিত সরকারের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অভিযোগ দেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক