বৈরী আবহাওয়া, বাংলাবাজার-শিমুলিয়া ফেরি বন্ধ

বৈরী আবহাওয়ায় পদ্মায় প্রচণ্ড ঢেউ আর স্রোতের কারণে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌপথে ফেরি চলাচল সাময়িক বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

মাদারীপুর ও মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 July 2021, 08:13 AM
Updated : 29 July 2021, 08:13 AM

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের সহ-মহাব্যবস্থাপক আহম্মদ আলী জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে ফেরি চলছিল। পরে আবহাওয়া আরও খারাপ হওয়ায় বেলা ১২টায়  ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। ঝুঁকি এড়াতে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়।

আবহাওয়া পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার ফেরি চলাচল শুরু করবে বলে তিনি জানান।

বাংলাবাজার ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক জামিল আহমেদ ভূঁইয়া বলেন, বৈরী আবহাওয়ায় সকাল থেকে এই ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ অন্যদিনের চেয়ে কম ছিল।

বর্ষা মৌসুম হওয়ায় পদ্মায় আগে থেকেই প্রচণ্ড স্রোত রয়েছে। তার ওপর নিম্নচাপের কারণে পদ্মা এখন আরও উত্তাল। নদীতে বড় বড় ঢেউ বয়ে যাচ্ছে।

সহ-মহাব্যবস্থাপক আহম্মদ আলী বলেন, ফেরিগুলো ঠিকমত চলতে পারছে না। ঘাটে ভিড়তে এবং ছাড়তে সমস্যা হচ্ছে।

“ঘাটগুলো ডিসপ্লেস হয়ে যাচ্ছে। এ অবস্থায় ফেরি চালানো ঝুঁকিপূর্ণ।

এদিকে ঢেউয়ে শিমুলিয়ায় ২ ও ৪ নম্বর ফেরিঘাট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাছাড়া ১ নম্বর ঘাটে অলস ফেরিগুলো নোঙর করে রাখায় এটি ব্যবহৃত হচ্ছে না। এখন শুধু ৩ নম্বর ঘাট ব্যবহার করে সীমিত সংখ্যক ফেরি চালানো হচ্ছে।

বহরের ১৮ ফেরির মধ্যে সাতটি চলছে বলে জানান সহ-মহাব্যবস্থাপক আহম্মদ আলী।

লকডাউনের কারণে আগে থেকেই সাধারণ গাড়ি পার করা হচ্ছে না। শুধু জরুরি পরিষেবার জন্য এই সাতটি ফেরি চালানো হচ্ছিল ১ জুলাই থেকে।

এদিকে কঠোরতার হুঁশিয়ারি দিয়ে শুরু হওয়া লকডাউনের মধ্যেও স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে অনেকে পদ্মা পাড়ি দিচ্ছে ফেরিতে করে। লকডাউনের কারণে লঞ্চ বন্ধ থাকায় ফেরিই তাদের একমাত্র ভরসা। অনুমোদন না থাকায় স্পিডবোটও বন্ধ রেখেছে প্রশাসন।

ঘাটে দায়িত্বরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাউসার হামিদ বলেন, ঢাকা থেকে দক্ষিণ বঙ্গে যাওয়া বা দক্ষিণ বঙ্গ থেকে ঢাকায় ফেরার প্রতিটি গাড়িতে তারা নজরদারি করছেন। যৌক্তিক কারণ দেখাতে না পারলে জরিমানা করছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক