ঠাকুরগাঁও জেলায় কোভিড শনাক্তে রেকর্ড

এ বছরে একদিনে ঠাকুরগাঁওয়ে এ জেলার রেকর্ড সংখ্যক করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 June 2021, 03:55 PM
Updated : 20 June 2021, 03:55 PM

রোববার রাত ৮টার দিকে ঠাকুরগাঁওয়ের সিভিল সার্জন ডা. মাহফুজার রহমান সরকার জানান, এ জেলায় নতুন ৭৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এটি এ বছরে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত।

এছাড়া নতুন করে এ রোগে আক্রান্ত তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ৫৭ জনে।

মৃতদের মধ্যে সদর উপজেলারে ৫০ ও ৭৯ বছর বয়সী দুজন এবং অপরজন বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৫২ বছর বয়সী ব্যক্তি। তারা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

সিভিল সার্জন ডা. মাহফুজার রহমান সরকার বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬৯টি নমুনা পরীক্ষা করে ৭৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

এরমধ্যে সদর উপজেলায় ৪৮ জন, পীরগঞ্জে ৬ জন, রানীশংকৈলে ১১ জন, বালিয়াডাঙ্গীতে ১১ জন এবং হরিপুর উপজেলায় একজন রয়েছেন।

“নমুনা পরীক্ষার অনুপাতে আক্রান্তের হার ১০ শতাংশ বেড়ে ৪৫ দশমিক ৫৬ শতাংশ হয়েছে।”

এর আগের দিন শনাক্তের হার ছিল ৩৫ দশমিক ৮৯ শতাংশ।

সিভিল সার্জন বলেন, “করোনা পরিস্থিতি আমাদের ভাবনায় ফেলেছে। কঠোর বিধিনিষেধের পরও প্রতিদিনই আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। এ অবস্থায় মাস্কসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিকল্প নেই।”

এদিকে, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ঠাকুরগাঁও জেলায় গত বৃহস্পতিবার থেকে এক সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে জেলা প্রশাসন। তবে বেশিরভাগ মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মানায় অনীহা দেখা যাচ্ছে।

তবে ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক ড. কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, চলমান বিধিনিষেধের সুফল পেতে অন্তত দুই সপ্তাহ সময় লাগবে।

“সংক্রমণ যেভাবে কমার কথা, সেভাবে কমছে না “

গত বছরের ১১ এপ্রিল ঠাকুরগাঁও জেলায় প্রথম করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত হয়,   জেলায় এ পর্যন্ত ২ হাজার ৪১০ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে ১ হাজার ৬৫০ জন সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র পেয়েছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক