রাঙামাটিতে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ

রাঙামাটির লংগদুতে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তার পরিবার আত্মহত্যায় প্ররোচনা অভিযোগ তুলেছে।

রাঙামাটি প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 June 2021, 05:40 PM
Updated : 19 June 2021, 05:40 PM

লংগদু থানার ওসি আরিফুল আমিন জানান, শনিবার সকালে উপজেলার গাঁথাছড়া এলাকার মিস্ত্রিটিলা থেকে গলায় ফাঁস লাগানো তাসলিমা আক্তার (২৮) নামে এই গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেন তারা।

তাসলিমা গাঁথাছড়া গ্রামের আফসার উদ্দিনের মেয়ে এবং একই গ্রামের শুক্কুর আলীর স্ত্রী।

আফসার উদ্দিন অভিযোগ করেন, তাসলিমার সঙ্গে তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের পারিবারিক কলহ ছিল।

“এর জেরে প্রায় সময় আমার মেয়েকে নির্যাতন করত তারা। এমনকি প্রতিবেশী যুবকের সঙ্গে তাসলিমার পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক আছে এমন অপবাদও দিয়েছে তারা। অপবাদ ও নির্যাতনের শিকার হয়ে তাসলিমা আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছে।”

তাসলিমার ১০ ও ৫ বছরের দুটি সন্তান রয়েছে বলে তিনি জানান।

ওসি আরিফুল বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে। রোববার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য রাঙামাটি সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। এ বিষয়ে তাসলিমার বাবা আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মামলা করেছেন। পুলিশ ঘটনা তদন্ত করছে।

তরুণীর শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগে ৩ নির্মাণ শ্রমিক আটক

রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলার ওয়াগ্গা ইউনিয়নে এক তরুণীর শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগে তিন নির্মাণ শ্রমিককে আটক করেছে পুলিশ, যাদের দুইজন কিশোর।

গ্রেপ্তারকৃত একজন হলেন ফজলুল হক সজীব (২০)। অন্য দুইজনের বয়স ১৬ বছর।

তারা রংপুরের পীরগঞ্জের বাসিন্দা; নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে ওয়াগ্গা এলাকায় কাজ করছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কাপ্তাই থানার ওসি মো. নাসির উদ্দীন বলে, আটক তিনজনের বিরুদ্ধে শনিবার থানায় মামলা হয়েছে। তাদের আদালতে পাঠানো হবে। শুক্রবার সন্ধ্যায় ওয়াগ্গা ইউনিয়নের দেবতাছড়ি মৌন এলাকায় দুপতারেঙ্গ পাহাড়ের ঢালে ফসলের ক্ষেতে তারা এক তরুণীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন বলে মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে। ঘটনার পর স্থানীয় একজন ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ গিয়ে রাতেই বড়ইছড়ি-ঘাগড়া সড়কের বগাপাড়া সেতুর নির্মাণকাজে নিয়োজিত তিন শ্রমিককে আটক করে পুলিশ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক