ভাসানচর থেকে পালানো ১২ রোহিঙ্গা কারাগারে

নোয়াখালীর ভাসানচর থেকে পালানোর পর আটক ১২ রোহিঙ্গকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

নোয়াখালী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 June 2021, 06:13 PM
Updated : 12 June 2021, 06:48 PM

শনিবার বিকেলে জেলার ২ নম্বর আমলী আদালতের বিচারক শেখ মোহাম্মদ মহিব উল্লাহ তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গ্রেপ্তাররা হলেন, আবুল খায়ের (৩৫), খতিজা বেগম (৭৫), ছমিনা বেগম (৩০), মো. ইউনুস (৩৫), মো. সিদ্দিক (২১), রাশিদা বেগম (২৩)। এছাড়া ১৬, ১৩, ৮, ৬, ৪ বছর বয়সী পাঁচ শিশু এবং ১১ মাস বয়সী একটি শিশু রয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক রিয়াদুল হাসান জানান, এ রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে তিনি বাদী হয়ে ১৯৪৬ সালের বিদেশি নাগরিক সম্পর্কিত আইনের ১৪র ধারায় মামলা করেছেন।

ওই রোহিঙ্গাদের সঙ্গে থাকা তাদের শিশুদের জেলার শিশু আদালত-১ এ তোলা

হয়। তাদের মধ্যে ১১ মাস বয়সী এবং চার বছর বয়সী দুই শিশুকে বিচারক জয়নাল আবেদিন তাদের বাবা-মায়ের সাথে রাখার আদেশ দেন।

অপর দিকে, বিচারক শেখ মোহাম্মদ মহিব উল্লাহ আটক অন্যদেরকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে শুক্রবার নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চর এলাহী দক্ষিণ ঘাট থেকে স্থানীয়রা ১২ জন রোহিঙ্গাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

পুলিশ জানায়, জিজ্ঞাসাবাদে আটক রোহিঙ্গারা কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাওয়ার উদ্দেশ্যে গত বুধবার রাত দেড়টার দিকে পালিয়ে বনের মধ্যে অবস্থান নেন। এরপর গত বৃহস্পতিবার ভোররাতের দিকে ট্রলারযোগে নদী পথে কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে তারা বলে পুলিশকে জানায়।

এর আগে গত ২০ মে ভাসানচর থেকে পালিয়ে যাওয়া দুই রোহিঙ্গা কিশোরীকে সুবর্ণচরে আটক করে স্থানীয়রা। ওইদিন রাত ৮টার দিকে সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের মেঘনা মার্কেট সংলগ্ন এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে এলাকাবাসী। তবে তাদের সঙ্গে থাকা দুই পুরুষ রোহিঙ্গা এ সময় পালিয়ে যায়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক