পিরোজপুরে ‘প্রতিপক্ষের’ হামলায় ইউপি চেয়ারম্যান আহত

পিরোজপুরে কদমতলা ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে।

পিরোজপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 May 2021, 06:53 PM
Updated : 15 May 2021, 06:53 PM

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে পিরোজপুর সদর উপজেলার কদমতলা ইউনিয়নের কদমতলা বাজার এলাকায় এ হামলায় এক পুলিশসহ আরও ছয়জন আহত হয়েছে।

জেলার পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান বলেন, ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করতে গিয়ে পুলিশও আহত হয়।

আহতদের মধ্যে কদমতলা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হানিফ খান (৪৫) এবং পিরোজপুর সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক আব্দুস সোবাহান রয়েছেন।

অন্য আহতরা হলেন, মিজান শেখ (৩৮) সদর উপজেলার  কদমতলা এলাকার সোবাহান শেখের ছেলে, মুনান খান (১৯) চলিশা এলাকার আফতাব আলীর ছেলে, লিটন খান (৪০) সদর উপজেলার  কদমতলা এলাকার মো. আলী খান এর ছেলে, তন্ময় গাজী (২০) সদর উপজেলার চলিশা এলাকার টেনু গাজীর ছেলে, তাজুল ইসলাম (২২) সদর উপজেলার নামাজপুর এলাকার মো. রাকিব শেখের ছেলে।

পিরোজপুর জেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তন্ময় মজুমদার জানান, আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

“এদের মধ্যে গুরুতর আহত মিজান শেখ এবং মুনান খানকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।”

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইউপি চেয়ারম্যান হানিফ খান জানান, তিনি আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা মার্কার প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

তিনি বলেন, স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা ঈদের পরে কুশল বিনিময়ের জন্য ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে উপস্থিত হয়। রাত সাড়ে ৮টার দিকে প্রায় ৫০ থেকে ৬০ জনের একটি সন্ত্রাসী বাহিনী তাদের উপর হামলা চালায়।

সন্ত্রাসীরা তাকে সহ আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের উপরে বোমা নিক্ষেপ করে এবং গুলি করে। পরে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কুপিয়ে আহাত করে। তার সাথে থাকা প্রায় ৭ থেকে ৮ জনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এছাড়া তাদের বাঁচাতে এসে পুলিশও হামলা আহত হয় বলে জানান তিনি।

এ হামলার জন্য হানিফ খান তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে দায়ী করেছেন।

ঘটনাস্থলে থাকা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এনামুল হক ইরান বলেন, সন্ত্রাসীরা তাদের উপর গুলি করে এবং বোমা নিক্ষেপ করে।

তবে এ অভিযোগ যাচাইয়ের জন্য তার প্রতিপক্ষের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক