তীব্র শীতেও বগুড়ায় দিনমজুর হাট জমজমাট

হাড় কাঁপানো শীত উপেক্ষা করে জীবনের তাগিদে বগুড়া শহরের নামাজ গড় এবং কলোনীতে দিনমজুর হাটে জটলা বেঁধে কোদাল, টুপরী নিয়ে অপেক্ষা করতে দেখা যায় দিনমজুররা।
  • মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে দেখা যায় শীতের হালকা হাওয়ায় শরীরে কাঁপন এবং কুয়াশা তাদের বাধা হতে পারেনি। খদ্দেররা আসছেন, দরদাম করছেন এবং কাজে নিয়ে যাচ্ছেন মজুরদের । দিন মজুরির দরদাম সাড়ে ৪শ’ থেকে ৫শ’ টাকার মধ্যে ঘোরাঘুরি করে । যুবকদের চাহিদা বেশি, একটু বুড়ো হলে মজুরি মেলে কম।

    মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে দেখা যায় শীতের হালকা হাওয়ায় শরীরে কাঁপন এবং কুয়াশা তাদের বাধা হতে পারেনি। খদ্দেররা আসছেন, দরদাম করছেন এবং কাজে নিয়ে যাচ্ছেন মজুরদের । দিন মজুরির দরদাম সাড়ে ৪শ’ থেকে ৫শ’ টাকার মধ্যে ঘোরাঘুরি করে । যুবকদের চাহিদা বেশি, একটু বুড়ো হলে মজুরি মেলে কম।

  • ভোর থেকে সকাল ৯টার মধ্যে এ হাটে দিন মজুর ঠিকা নেওয়া চলে। বিভিন্ন উপজেলা থেকেও দিনমজুর আসেন। চুক্তির পর বিকেল ৪টা পর্যন্ত কাজ করেন তারা। চক ফরিদ এলাকার শহিদুল ইসলাম জানান, তিনি ৫শ’ টাকা করে দুইজন মজুরকে নিয়েছেন।  

    ভোর থেকে সকাল ৯টার মধ্যে এ হাটে দিন মজুর ঠিকা নেওয়া চলে। বিভিন্ন উপজেলা থেকেও দিনমজুর আসেন। চুক্তির পর বিকেল ৪টা পর্যন্ত কাজ করেন তারা। চক ফরিদ এলাকার শহিদুল ইসলাম জানান, তিনি ৫শ’ টাকা করে দুইজন মজুরকে নিয়েছেন।  

  • কলোনীর দিনমজুর হাটে গাবতলী উপজেলার নশিপুরের মোয়াজ্জেম হোসেন (৬০) জানান, বুড়া (বৃদ্ধ) কামলার দিন মজুরি কম। আর নামাজ গড়ের দিনমজুর হাটে আসা মালেক শেখ বলেন, “এখনও ইরি-বোর চাষ ভালোভাবে শুরু হয়নি। তাই কাহালুতে চাহিদা এখনও কম। তাই বগুড়া শহরে এসেছি।”

    কলোনীর দিনমজুর হাটে গাবতলী উপজেলার নশিপুরের মোয়াজ্জেম হোসেন (৬০) জানান, বুড়া (বৃদ্ধ) কামলার দিন মজুরি কম। আর নামাজ গড়ের দিনমজুর হাটে আসা মালেক শেখ বলেন, “এখনও ইরি-বোর চাষ ভালোভাবে শুরু হয়নি। তাই কাহালুতে চাহিদা এখনও কম। তাই বগুড়া শহরে এসেছি।”

Print Friendly and PDF