নতুন গল্প তৈরি করেছেন সিনহা: আইনমন্ত্রী

পদত্যাগের এক বছরে এসে সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা নতুন গল্প তৈরি করেছেন বলে মন্তব্য করে সমালোচনা করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Sept 2018, 04:54 PM
Updated : 24 Sept 2018, 11:52 AM

রোববার নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির একটি অনুষ্ঠানে এসে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এসকে সিনহার বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগ স্বাধীন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) খতিয়ে দেখছে। দুদক তার বিরুদ্ধে যখন মামলা করবে, তখনই মামলা হবে। সরকার এখানে কোনো হস্তক্ষেপ করবে না।

বিচারপতি এস কে সিনহার লেখা আত্মজীবনীমূলক বই ‘এ ব্রোকেন ড্রিম: রুল অব ল, হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেমোক্রেসি’ সম্প্রতি প্রকাশের পর থেকে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

২০১৭ সালের ১৪ অক্টোবর দেশ ছেড়ে যাওয়া সাবেক এই প্রধান বিচারপতি তার বইতে দাবি করেছেন, তিনি ‘হুমকির মুখে’ দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন।

 সিনহা আজ যা বলছেন তা ‘সবই মিথ্যা’ দাবি করে আনিসুল হক বলেন, তিনি পদত্যাগ করেছেন তার কারণ হচ্ছে আপিল বিভাগের তার সহযোগী বিচারকরা তার সঙ্গে বসতে, আদালত চালাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন।

“কেন অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন? অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন এই কারণে যে তিনি দুর্নীতিবাজ। বিচারপতিরা যখন বার বার বলেছেন, আমরা আপনার সাথে একসাথে বসব না-তখন তিনি উপায় না দেখে পদত্যাগ করেছেন।

“আজকে পদত্যাগের প্রায় এক বছরে তিনি এসে নতুন গল্প সৃষ্টি করেছেন। এটা আমি আগেও বলেছি, এখনও বলছি। এটা হচ্ছে একজন পরাজিত ব্যক্তির হা-হুতাশ।”

আইনমন্ত্রী বলেন, আরেকটি কথা হয়ত আসতে পারে- কেন দুর্নীতির অভিযোগ থাকা সত্বেও তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা এখন পর্যন্ত হয়নি।

“আমরা কিন্তু সব সময় বলে আসছি, আইন সকলের ঊর্ধ্বে এবং তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। স্বাধীন দুর্নীতি দমন কমিশন সেটা খতিয়ে দেখছে। তারা যখন তার বিরুদ্ধে মামলা করবেন, তখনই মামলা হবে। সেখানে সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না।”

সংবিধান অনুযায়ী আগামী ডিসেম্বর মাসে নিধারিত সময়ে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে আনিসুল হক বলেন, “কিছু কিছু লোক বলছেন নির্বাচন হবে না। আমি বলেতে চাই সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়ার নিধারিত সময়েই নির্বাচন হবে। অওয়ামী লীগ এই নির্বাচনে অংশ নিবে।”

বিএনপিকে তিনি এই নির্বাচনে অংশগ্রহণের আহবান জানান।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নিজস্ব টাকায় পদ্মা সেতু নির্মিত হচ্ছে। দেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে বাংলাদেশ পরিণত হয়েছে, বলেন আইনমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, “যারা আজকে সংবিাধান পরিপন্থি ব্যবস্থা করার জন্য পায়ঁতারা করছেন তাদের শুধু একটা কথাই বলতে চাই- আপনারা যখন এত কথাই বলেন অংশগ্রহণ করেন ডিসেম্বরের নির্বাচনে। মানুষ যদি আপনাদের গ্রহণ করে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। আর মানুষ যদি আমাদের গ্রহণ করে তবে আপনারা কোনো আপত্তি করতে পারবেন না।”

নির্বাচনের দায়িত্বে থাকবে নির্বাচন কমিশন। সংবিধান অনুযায়ী তারা নির্বাচন পারিচালনা করবেন, বলেন মন্ত্রী।

বিকালে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী কমিটির অভিষেক ও ডিজিটাল বার ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করেন মন্ত্রী। এরপর তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, নারায়ণগঞ্জের সিজিএম (চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট) কোর্ট ও জেলা দায়রা জজ দুজায়গায় হলে বিচার কাজ পরিচালনা করতে গিয়ে আইনজীবীদের সমস্যায় পড়তে হবে।

তিনি এই সমসা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানান।

“এরই মধ্যে পাওয়ার ডেভলপমেন্ট বোর্ডের সাথে আমার কথা হয়েছে। তারা সিজিএম কোর্ট নির্মাণের জন্য তাদের জায়গাটি আমাদের ছেড়ে দেবে। আর পাওয়ার ডেভলপমেন্ট বোর্ড সিজিএম কোর্টের জন্য যে ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছে তারা সেই ভবনটি নিয়ে নিবে।”

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেই এই কাজ সম্পন্ন করা হবে জানিয়ে মন্ত্রী আইন মন্ত্রণালয় থেকে নারায়ণগঞ্জ ডিজিটাল বার ভবন নির্মাণ করার জন্য এক কোটি টাকা অনুদান প্রদানের ঘোষণা দেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সিমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান, একেএম শামীম ওসমান, গোলাম দস্তগীর গাজী, নজরুল ইসলাম বাবু, সংরক্ষিত নারী আসনের হোসনে আরা বাবলী প্রমুখ।

এদিকে বার ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান বর্তমান নির্বাহী কমিটির ১৭ সদস্যের মধ্যে ১১ জন অনুষ্ঠান বর্জন করেছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক