সবাইকে নির্বাচনে আনতে নতুন উদ্যোগ নয়: সিইসি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সকল দলকে আনতে নতুন করে উদ্যোগ নেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 March 2018, 10:58 AM
Updated : 8 March 2018, 12:12 PM

বৃহস্পতিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলা প্রশাসকের হলরুমে আয়োজিত আইনশৃঙ্খলা সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়-১ (নাসিরনগর) আসনের উপ-নির্বাচন উপলক্ষে জেলা নির্বাচন কমিশনের উদ্যোগে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী মোহাম্মদ ছায়েদুল হক মৃত্যুতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া -১ আসনটি শূন্য হয়। এখানে ১৩ মার্চ উপ নির্বাচনে দিন রেখে তফসিল দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, “আমরা সব সময়ই চাই সকল দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। সংলাপের সময় সকলের সাথে কথা হয়েছে। তবে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সকল দলের অংশগ্রহণে জন্য নতুন করে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হবে না।”

গত বছরের ৩১ জুলাই নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনার মধ্যে দিয়ে ইসির সংলাপ শুরু হয়। এরপর ১৬ ও ১৭ অগাস্ট গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় করে ইসি।

২৪ অগাস্ট থেকে ১৯ অক্টোবর ৪০টি দলের সঙ্গে আলোচনা শেষে ২২ ও ২৩ অক্টোবর নির্বাচন পর্যবেক্ষক ও নারী নেত্রীদের সঙ্গে মত বিনিময় হয়। আর সবশেষে সাবেক সিইসি, ইসি ও সাবেক সচিবদের সঙ্গে বসে কমিশন।

নাসিরনগর নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ নূরুল হুদা বলেন, এখানে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করতে সকল কাজ ইতোমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে। সংখ্যালঘুরা যেন নির্বিঘ্নে ভোটকেন্দ্রে যেতে পারে সে ব্যবস্থাও নেওয়া হচ্ছে।”

এ নির্বাচন নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য হবে বলে আশা করেন তিনি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমানের সভাপতিত্বে আইনশৃঙ্খলা সভায় উপস্থিত ছিলেন, নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা, বিজিবি কুমিল্লা সেক্টর কমান্ডার জোবায়ের হাসনাৎ, চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ আবুল ফয়েজ, উপ-নির্বাচনের রিটার্নি অফিসার ও কুমিল্লার বিভাগীয় নির্বাচন কর্মকর্তা মো. সাহেদুন্নবী চৌধূরী, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান প্রমুখ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক