টেকনাফে পুলিশের গুলি, একজন নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নে নির্বাচনের ফল ঘোষণাকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ গুলি করার পর একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

কক্সবাজার প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 March 2016, 06:53 PM
Updated : 22 March 2016, 06:53 PM

নিহত আব্দুল গফুর (৩৫) স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর হোসেনের ভাই।

মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে সাবরাং ইউনিয়নের মুন্ডার ডেইল কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান টেকনাফ থানার ওসি মো. আব্দুল মজিদ।

ওসি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, মুন্ডার ডেইল কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শেষে ব্যালেট বক্স ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে একদল লোক।

“পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কর্তব্যরত আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা গুলি করলে বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হয়।”

তবে এ ঘটনায় কেউ নিহত হয়েছে বলে তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি।

টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক আতাউর রহমান জানান, মুন্ডার ডেইলে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় হাসপাতালে পাঁচজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আনা হয়।

“তাদের মধ্যে আব্দুল গফুরকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে পথেই তার মৃত্যু হয়।”

অপরদিকে ভোটের ফল ঘোষণাকে কেন্দ্র করে সাবরাংয়ের মাঝের পাড়া কেন্দ্রে ইউপি সদস্য প্রার্থী নুরুল আমিন ও মোহাম্মদ সেলিমের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এ কেন্দ্রে কয়েক ভোটের ব্যবধানে প্রথমে নুরুল আমিনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ফল চ্যালেঞ্জ করেন অপর প্রার্থী মো. সেলিম। এরপর ভোট পুনরায় গণনা করা হয়। গণনা শেষে সেলিমকে বিজয়ী ঘোষণার সাথে সাথে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়।

উভয়পক্ষের সমর্থকরা গুলি বর্ষণ করে বলেও স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

একপর্যায়ে উভয়পক্ষের লোকজন ব্যালেট বাক্স ছিনতাইয়ের চেষ্টা করলে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা গুলি করে বলে ওসি আব্দুল মজিদ জানান।

এ ঘটনায় অন্তত ১৫ জন আহত হয় বলেও তিনি জানান।

ঘটনার পর এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশসহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।