ফখরুল বেপরোয়া গাড়ি চালকের মতো: কাদের

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে বেপরোয়া গাড়ি চালকের সঙ্গে তুলনা করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

গাজীপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 August 2018, 03:01 PM
Updated : 10 August 2018, 04:10 PM

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী কাদের শুক্রবার গাজীপুরে সাংবাদিকদের বলেন, “বিএনপি এবং ফখরুল বেপরোয়া গাড়ি চালকের মতো বেপরোয়া হয়ে পড়েছেন।”

সকালে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুর ইসলাম আলমগীর মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাওয়া প্রস্তাবিত সড়ক পরিবহন আইনের খসড়ার সংশোধনের দাবি তুলেছেন।

দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর আন্দোলনের মুখে গত ৬ অগাস্ট সড়ক পরিবহন আইনের খসড়া অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা, যেখানে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনায় শাস্তি দুই বছর বাড়িয়ে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

এই আইনে সড়ক পরিবহন খাতে মানুষ হত্যা ও অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনার এড়ানোর স্পষ্ট দিক নির্দেশনা কিংবা কঠোর শাস্তির বিধান নেই বলে দাবি করেন মির্জা ফখরুল।

ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা গত ৯ বছরে ৯ মিনিটের আন্দোলন করতে পারেনি। তারা কোটা আন্দোলনের উপর ভর করে ব্যর্থ হয়েছে, ছাত্র-ছাত্রীদের আন্দোলনের উপর ভর করে ব্যর্থ হয়েছে, নিরাপদ সড়কের আন্দোলনের উপর ভর করেও সফলতার মুখ দেখেনি।

“তাই আন্দোলনে হতাশ বিএনপি নেতাকর্মীদের চাঙ্গা করার জন্য সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করছে।”

বিকালে গাজীপুরের চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ এবং চালকদের গাড়ির কাগজপত্র পরীক্ষার অভিযান শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন সেতুমন্ত্রী।

এ সময় মন্ত্রী আরও বলেন বিআরটিএতে লাইসেন্স গ্রহণ ও লাইসেন্স নবায়নসহ বিভিন্ন সেবা গ্রহণের জন্য মানুষের ভিড় বেড়েছে।

বিআরটিএ-এর সেবা গ্রহণের সুবিধার্থে টাকা জমা দেওয়ার দুর্ভোগ লাঘবের জন্য মোবাইল ব্যাংকিং চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

‘শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা ছিল’

গাজীপুর থেকে ফেরার পথে সন্ধ্যায় মন্ত্রী আশুলিয়ার নবীনগর এলাকায় যানবাহনের কাগজপত্র ও চালকের ড্রাইভিং লাইন্সেস পরীক্ষা করেন।

এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অব্যশই রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা ছিল।”

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পেছনে কারা ছিল সরকার তদন্ত করে দেখছে। তদন্তে যদি প্রমাণ হয় তারা নাশকতার সাথে জড়িত তাহলে তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

“আওয়ামী লীগ অফিসে পরপর দুইবার হামলা হয়েছে। এইসব হামলা ছাত্রছাত্রীরা করে নাই; এর পেছনে রাজনৈতিক ইন্ধন রয়েছে। কারা স্কুল ব্যাগ হাজার হাজার বানিয়েছে, ব্যাগের মধ্যে চাপাতিসহ অনেক অস্ত্র নিয়ে ঘুরেছে- তাদের বিরুদ্ধে সরকার তদন্ত করে দেখছে।”

আগামী কোরবানির ঈদে রাস্তায় কোনো সমস্যা হবে না জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, এবার ঈদযাত্রা মানুষের স্বস্তিদায়ক হবে এবং রাস্তার পাশে কোনো পশুর হাট বসবে না।

ঈদের আগে মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে র‌্যাব সদস্যরা যানজট নিরসনে কাজ করবেন বলে জানান মন্ত্রী।

এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে ঢাকা বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সবুজ উদ্দিন খান, সাসেক প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. ইসহাকসহ সড়ক বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক