টরন্টোতে কলিম শরাফীকে স্মরণ

কানাডার প্রবাসী একটি সংগঠন প্রখ্যাত শিল্পী কলিম শরাফীকে নিয়ে স্মরণ সভা করেছে।

কানাডা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Dec 2015, 10:17 AM
Updated : 1 Dec 2015, 10:22 AM

Also Read: টরন্টোতে ‘সুরের ধারা’

Also Read: কানাডায় উদীচীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

Also Read: টরন্টোতে হয়েছে ‘বাংলাদেশ ফেস্টিভাল’

Also Read: সাকা-মুজাহিদের ফাঁসিতে টরন্টোতে আনন্দ

Also Read: টরন্টোতে ‘আজি বাংলাদেশের হৃদয় হতে’

Also Read: টরন্টো স্টার অ্যাওয়ার্ড পেল দুই প্রবাসী শিক্ষার্থী

Also Read: টরেন্টোতে 'সাউন্ড অব ঘুঙরু'  

Also Read: টরন্টো ফিল্ম ফেস্টিভালে মেঘমল্লার

Also Read: টরন্টোতে চবি গ্র্যাজুয়েটদের ‘আনন্দ দিন’

Also Read: কানাডায় মুক্তিযোদ্ধা জহিরুল ইসলামকে শেষ শ্রদ্ধা

Also Read: টরন্টোয় বাঙালিদের ঈদ উদযাপন

Also Read: ‘বিজ্ঞানমনস্ক’ লেখক হত্যার প্রতিবাদে টরন্টোতে কর্মসূচি

Also Read: ‘কানাডায় বহুজাতিক সংস্কৃতির বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশিরা’

‘কিংবদন্তীর শিল্পী কলিম শরাফী তাঁর অসাধারন প্রতিভায় কিংবদন্তীর শিল্পী হয়ে উঠেছিলেন। কিন্তু সেই সব ছাপিয়ে উঠেছিলো তার সংগ্রামী এবং মানবতাবাদী বৈশিষ্টগুলো।’

রোববার টরন্টোর ড্যানফোর্থে কিংবদন্তীর এই শিল্পী ৫ম প্রয়ান দিবস উপলক্ষে আয়োজিত স্মারক অনুষ্ঠানে বক্তারা এইভাবে চিত্রিত করেন শিল্পী কলিম শরাফীকে।

টরন্টোর প্রাচী সঙ্গীত অ্যাকাডেমি আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে গানে-কবিতায় ভালোবাসার নৈবেদ্য সাজিয়ে টরন্টো প্রবাসীরা পরম শ্রদ্ধায় স্মরন করেন কিংবদন্তীর শিল্পী কলিম শরাফীকে। হলভর্তি দর্শক শ্রোতা মুগ্ধ হয়ে কিংবদন্তির এক শিল্পীর সংগ্রামী জীবনের উপখ্যান শুনেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই তিনটি প্রদীপ জ্বালিয়ে স্মরণসভার সূচনা করা হয়। শহিদ খন্দকার টুকু, আলেয়া শরাফী এবং ফারহানা আজিম শিউলী ‘আছে দু:খ, আছে মৃত্যু, বিরহদহ্ন লাগে। তবুও শান্তি, তবু আনন্দ, তবু অনন্ত জাগে।‘ গানটির প্রথম কয়েক লাইন গাইতে গাইতে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করেন।

তারপর শিল্পী কলিম শরাফীর বর্ণাঢ্য এবং সংগ্রামময় জীবনের উপর নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এতে শিল্পীর জীবন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে তার ভূমিকা এবং স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গণমুখী সাংস্কৃতিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়ার ইতিবৃত্ত তুলে ধরা হয়।

শিল্পী কলিম শরাফীর কর্মময় জীবনের স্মৃতি নিয়ে আলোচনা করেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নিলাদ্রি চাকি এবং মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল মালিক।

কবি আসাদ চৌধুরী নির্ধারিত আলোচক হলেও তিনি শিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে একটি কবিতা পাঠ করেন।

এরপর গানে কবিতায় মহান এই শিল্পীকে স্মরণ ও তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। টরন্টোর খ্যাতিমান শিল্পীদের মধ্যে এই পর্বে সঙ্গীত পরিবেশন করেন শহিদ খন্দকার টুকু, সুনীল গোমেস, শাহজাহান কামাল, নন্দিতা গোমস, চিত্রা সরকার, ইয়াসমিন আনাম বিন্দু, সুভাষ দাস, স্নিগ্ধা চৌধুরী, নিঘাত মোর্তোজা শর্মি, সুবর্না চৌধুরী। শিল্পীদের তবলায় সহযোগিতা করেন সজীব চৌধুরী। আবৃত্তি করেন রাশিদা মুনির এবং শফিক আহমেদ। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন ফারহানা আজিম শিউলী।

অনুষ্ঠানের শেষে শিল্পী কলিম শরাফীর গাওয়া ‘পুরনো সেই দিনের কথা ভুলবি কিরে হায়’ এর সঙ্গে  শিল্পী এবং দর্শক শ্রোতারা সমবেতকণ্ঠে গান গেতে গেতে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানা হয়। রেকর্ডারে শিল্পীর গাওয়া গানটি বাজানো হলেও মনে হচ্ছিলো যেন স্বয়ং শিল্পী কলিম শরাফীর সঙ্গেই গলা মিলাচ্ছেন সমবেত দর্শক শ্রোতা।

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা সরাসরি আমাদের জানান। নাম, ঠিকানা ও সংশ্লিষ্ট ছবিসহ লেখা পাঠিয়ে দিন এই ঠিকানায়  probash@bdnews24.com

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক