হৃৎপিণ্ডে আরও দুটি ব্লক, নিবিড় পর্যবেক্ষণে খালেদা

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার হৃদপিণ্ডে আরও দুটি ব্লক পাওয়া গেছে; কিডনি ও লিভার জটিলতার কারণে তাকে ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 June 2022, 10:45 AM
Updated : 12 June 2022, 10:45 AM

রোববার দুপুরে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক এজেডএম জাহিদ হোসেন বলেন, “এখন পর্যন্ত উনি শারীরিকভাবে যে অবস্থায় আছেন, ডাক্তারদের বক্তব্য হল, ৭২ ঘণ্টা না গেলে... কোনো কমেন্ট করা ঠিক হবে না। সেজন্য উনারা কোনো মন্তব্য করা থেকে বিরত রয়েছেন।”

সিসিইউতে খালেদাকে কার্ডিওলস্টিদের পর্যবেক্ষেণে রাখার কথা জানিয়ে জাহিদ বলেন, “গতকাল ম্যাডামের হার্টে এনজিওগ্রাম করার পর তিনটা ব্লক পাওয়া যায়। একটা ব্লক মেইন গ্রেট ভেসেল, যেটা লেফট সাইডে, সেটায় মোর দ্য ৯৫% ব্লক ছিল।

“এ কারণে উনার হার্ট অ্যাটাক হয়… এনজিওগ্রামে ওখানে সাথে সাথে স্টেন্টিং করা হয়েছে।”

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান জাহিদ হোসেন বলেন, “বাকি দুইটি ব্লকের বিষয়ে উনার শরীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে পরবর্তীতে ব্যবস্থা করা হবে। কারণ উনার ক্রনিক কিডনি ডিজিজ আছে, ক্রনিক লিভার ডিজিস আছে, এক্ষেত্রে যেসব ওষুধ ইউজ করতে হয়, তাতে কিডনির ক্ষতির পরিমাণ বেড়ে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে। সেজন্য আরও দুটি ব্লক অপসারণের কাজটি বাকি রাখা হয়েছে।”

৭৬ বছর বয়সী সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে পড়লে শুক্রবার রাতে তাকে ঢাকার বসুন্ধরায় এভারকেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে তার হৃদযন্ত্রে সমস্যা ধরা পড়লে এনজিওগ্রাম করার সিদ্ধান্ত হয়। শনিবার দুপুরে হৃদপিণ্ডে একটি ব্লক অপসারণ করে সেখানে স্টেন্টিং করা হয়।

ডা. জাহিদ বলেন, “নানা দিক বিবেচনা করে মেডিকেল বোর্ড ক্রিটিক্যালি যেটা বেশি, উনাকে বেশি শারীরিকভাবে কষ্ট দিচ্ছে, সেটাতে স্টেন্টিং করেছে। একিউট ইমার্জন্সি যেটা হয়েছিল, সেটার থেকে ওভারকাম করার জন্য গতকালকে একটা করা হয়েছে। রোগীর চিকিৎসার ব্যাপারে ডাক্তাররা সার্বক্ষণিক নজর রাখছেন।”

হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক অধ্যাপক শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে ১৯ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড খালেদা জিয়াকে পর্যবেক্ষণ করছে।

এজেডএম জাহিদ হোসেন বলেন, “ম্যাডামের পরিবারসহ কাউকে উনারা অ্যালাউ করছেন না। আমরা নিজেরাও সেখানে বেশি যাতায়াত করছি না। বাহির থেকে যতটুকু সহযোগিতা করার করছি।

পুরনো খবর:

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক