দেশের ‘শান্তির’ জন্যই খালেদাকে বিদেশে পাঠানো জরুরি: ফখরুল

দেশের ‘শান্তি-স্থিতিশীলতার’ প্রয়োজনেই খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানো ‘জরুরি’ বলে মন্তব্য করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Nov 2021, 12:39 AM
Updated : 28 Nov 2021, 12:40 AM

রোববার দুপুরে রাজধানীতে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তৃতাকালে বিএনপি মহাসচিব এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, “আমরা শান্তিপূর্ণভাবে এ দাবি জানাচ্ছি। আমরা বার বার বলছি যে আপনারা (সরকার) তাকে বিদেশে পাঠান চিকিৎসার জন্য। আমরা তো বুঝি না, আমাদের মাথাই আসে না- সমস্যাটা কোথায়? কেন আইনের কথা বলছেন? আইন তো ভুল দেখাচ্ছেন আপনারা। অতএব তাকে পাঠিয়ে দিন।“

“দেশের যদি সত্যিকার অর্থে শান্তি চান, স্থিতিশীলতা চান, গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে চান, সত্যিকার অর্থেই একটা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে চান তাহলে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকেই দরকার হবে। অন্যথায় কেউ এখানে শান্তি-স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে পারবে না।“

গত ১৩ নভেম্বর থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বসুন্ধরায় এভারকেয়ার হাসপাতালে সিসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন। ৭৬ বছর বয়সী সাবেক প্রধানমন্ত্রী পরিপাকতন্ত্রে রক্তক্ষরণসহ নানা রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

খালেদার শারীরিক অবস্থার কথা তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, “দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ, অত্যন্ত অসুস্থ, গুরুতর অসুস্থ। প্রতিদিন চিকিৎসকরা তার জীবন রক্ষার জন্য পরিশ্রম করছেন। তাকে এভাবে বাইরে যেতে না দেওয়া কেন? তাকে শর্ত সাপেক্ষে আটক রাখার কারণটা কেন?

“একটাই মাত্র কারণ যে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া একমাত্র নেত্রী যিনি এ বাংলাদেশের জন্ম থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত মানুষের জন্য কাজ করছেন, মানুষের জন্য কথা বলেছেন।তিনি যখন বিরোধী দলের নেত্রী ছিলেন গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য ৯ বছর পথে পথে ঘুরে বেরিয়েছেন। তিনি যখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তখন এদেশের মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করেছেন, কৃষক, শ্রমিক, মজুর, খেটেখাওয়া মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করেছেন।“
খালেদা জিয়া সুস্থ হয়ে ফিরে আসলে জনগণের অধিকার আদায় করবেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, তার পেছনে মানুষ হ্যামিলনের বংশীবাদকের মতো আসবে সেজন্য তারা তাকে মুক্তি দিতে চান না, তার চিকিৎসা করাতে চান না।

“আমরা খুব পরিষ্কার করেই বলেছি, দেশনেত্রীকে যে মামলায় আপনারা সাজা দিয়েছেন যেটা একটা মিথ্যা মামলা এবং সেখানে বিচারের নামে শুধু প্রহসন করা হয়েছে। তাকে ব্যক্তিগত, রাজনৈতিক ও প্রতিহিংসার কারণে সাজা দিয়ে আপনারা আটক করে রেখেছেন।”

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দ্রুত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে এ মানববন্ধন হয়।

বিএনপি ও তার অঙ্গসংগঠনগুলো খালেদা জিয়াকে বিদেশে সুচিকিৎসার দাবিতে গত ২৫ নভেম্বর থেকে ধারাবাহিকভাবে সমাবেশ-মানববন্ধনের কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে, যা চলবে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, যুগ্ম সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ ও সাদরেজ জামানের যৌথ সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমান উল্লাহ আমান, কেন্দ্রীয় নেতা মীর সরাফত আলী সপু ও সেলিমুজ্জামান সেলিম, যুবদলের সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, কৃষক দলের হাসান জাফির তুহিন, স্বেচ্ছাসেবক দলের গোলাম সারোয়ার, বিথিকা বিনতে হোসাইন, আনু মো. শাহিন, জামিল হাসান, এমদাদুল হক, ইয়াসীন আলী, এসএম জিলানী, ফখরুল ইসলাম রবিন প্রমুখ নেতা বক্তব্য রাখেন।

আরও পড়ুন:

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক