ইসি গঠন এবারও সার্চ কমিটির মাধ্যমে: তথ্যমন্ত্রী

রাষ্ট্রপতি এবারও ‘সার্চ কমিটি’র মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। 

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Oct 2021, 12:29 PM
Updated : 7 Oct 2021, 12:29 PM

ফাইল ছবি

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সম্পাদক ফোরামের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

নির্বাচন পরিচালনাকারী কর্তৃপক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনের এখতিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানের। আইন না হওয়ার মধ্যে রাষ্ট্রপতি সার্চ কমিটির মাধ্যমে সুপারিশ নিয়ে তা গঠন করে আসছেন।

‘সার্চ কমিটি’র মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন প্রক্রিয়া নিয়ে আপত্তি জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দুদিন আগে বলেছিলেন, এটা জনগণের সঙ্গে ‘ধোঁকাবাজি’।

এর প্রতিক্রিয়ায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, “মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব প্রতিদিনই কথা বলেন। প্রতিদিন তিনি একি ধরনের কথা বলেন। কথার মধ্যে কোনো ভিন্নতা নেই।”

“সার্চ কমিটির মাধ্যমে গত নির্বাচন কমিশন গঠিত হয়েছিল। সে নির্বাচন কমিশনে বিএনপির ঘোর সমর্থক একজন নিয়োগ পেয়েছেন। সার্চ কমিটি যে সঠিকভাবে কাজ করে, সেটা এ নির্বাচন কমিশন দেখলেই বোঝা যায়। এবারও সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠিত হবে।”

বিএনপি নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের যে দাবি তুলেছে, সে বিষয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, “তত্বাবধায়ক সরকার বাংলাদেশে কোনোদিন হবে না।

“সংবিধান অনুযায়ী বর্তমান সরকারই নির্বাচনকালীন সরকারের দায়িত্ব পালন করবে। রুটিন কাজ করবে। আর নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে। সরকারের অধীনে নির্বাচন হয় না। সকল উন্নত দেশে তাই হয়। আমাদের দেশেও তাই হবে।”

‘ক্লিন ফিড বাস্তবায়নে কঠোরতা থাকবে’

বিদেশি চ্যানেলে ক্লিন ফিড বাস্তবায়নে সরকার যে উদ্যোগ নিয়েছে, সেখানে কঠোরতা থাকবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, “ক্লিন ফিড বাস্তবায়ন সহজ কাজ ছিল না। ১৫ বছরে এটি বাস্তবায়িত হয়নি। এর আগেও একবার আমরা উদ্যোগ নিয়েছিলাম। নানা অজুহাতে সেটি করা সম্ভবপর হয়নি। এবার স্থির সিদ্ধান্ত নিয়ে আগে ভাগে গ্রাউন্ড ওয়ার্ক করে এবং যে সমস্ত জায়গা থেকে কথা উঠতে পারে, তাদেরকে অবহিত করে আমরা সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করেছি৷ সুতরাং এ সিদ্ধান্ত থেকে আমরা একচুলও নড়বো না।”

ক্লিন ফিড মানে হল, তাতে কোনো বিজ্ঞাপন থাকতে পারবে না৷ বাংলাদেশে দেখানো বিদেশি চ্যানেলে বিদেশি বিজ্ঞাপনও দেখা যায়। তা বন্ধের এবার কঠোর হয়েছে সরকার।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক